বই পড়া প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন নাবিলা

বই পড়া প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন নাবিলা

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘বই পড়া প্রতিযোগিতা’র চূড়ান্ত পর্ব ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান আজ বুধবার (২৪ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাঙ্কুয়েট হলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী ইসমাত জাহান নাবিলা, প্রথম রানার আপ হয়েছেন ফার্মেসী বিভাগের শিক্ষার্থী তানজিনা আক্তার তৃষা এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী ইকতেদার ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়েছেন বাংলা ভাষার বিশিষ্ট কথাসাহিত্যক প্রফেসর আনোয়ারা সৈয়দ হক। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলামের সভাপতিত্তে¡ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক এ এম এম হামিদুর রহমান। বক্তব্য রাখেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. গোলাম মওলা চৌধুরী, লাইব্রেরিয়ান ড. মো. মিলন খান ও ইংরেজি বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক মো. রাকিবুল হাসান খান প্রমুখ। পুরস্কার বিতরণের পর অতিথিরা ‘ডিআইইউ রিডার্স ক্লাব’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন । নবগঠিত রিডার্স ক্লাবের মডারেটর নির্বাচিত হয়েছেন ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক ফারজানা ইয়াসমিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর আনোয়ারা সৈয়দ হক বলেন, পড়ার কোনো বিকল্প নেই। বহু বিচিত্র বিষয়ে পড়তে হবে। শুধু পাঠ্যবই নয়, পাঠ্য বইয়ের বাইরেও পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। পড়ার অভ্যাস থাকলে ভাষার ওপর দখল তৈরি হয়, গুছিয়ে লেখার ক্ষমতা, চিন্তা করার ক্ষমতা, প্রশ্ন করার অভ্যাস, যে কোনো বিষয়কে ভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার ক্ষমতা ইত্যাদি গুণাবলী তৈরি হয়। এজন্য তিনি শিক্ষার্থীদেরকে মেধা ও মননের বিকাশে প্রচুর বই পড়ার আহ্বান জানান।

মাতৃভাষার চর্চা জরুরি উল্লেখ করে বিশিষ্ট এই লেখক আরো বলেন, মাতৃভাষার ওপর যার দখল যত বেশি, অন্য ভাষাকেও তিনি তত দ্রæত দখলে নিতে পারেন। ইংরেজি একটি আন্তর্জাতিক ভাষা এবং এই ভাষাতেই আমাদেরকে সারা বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হয়। এজন্য ইংরেজি ভাষা শেখা খুবই দরকার। আর ইংরেজি ভাষা ভালোভাবে শেখার জন্য বাংলা ভাষা আগে ভালোভাবে শেখা জরুরি বলে মন্তব্য করেন আনোয়ারা সৈয়দ হক।

উল্লেখ্য, গত বছর শুরু হওয়া বই পড়া প্রতিযোগিতাটি মোট ৬টি পর্ব পেরিয়ে আজ চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হলো। প্রতিযোগিতায় ৪৫জন প্রতিযোগি অংশগ্রহণ করেন এবং ৬টি পর্ব পেরিয়ে চূড়ান্ত পর্বে উত্তীর্ণ হোন ৬জন। চূড়ান্ত পর্বে ৬ জনের মধ্য থেকে বিজয়ী হলেন ৩জন।

Leave a Reply