সংবর্ধনা পেল কৃতি শিক্ষার্থীরা

সংবর্ধনা পেল কৃতি শিক্ষার্থীরা

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজ ও ড্যাফোডিল কলেজ অব হিউম্যান ডেভলপমেন্ট-এর এইচএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য ‘কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ২০১৯’ আয়োজন করেছিল ড্যাফোডিল পরিবার। আজ শনিবার (৩১ আগস্ট) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল পরিবারের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল পরিবারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল (অব.) জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান, বাংলাদশ স্কিল ডেভলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের (বিএসডিআই) নির্বাহী পরিচালক কে এম হাসান রিপন, ড্যাফোডিল ইনস্টিটিউট অব আইটির অধ্যক্ষ শাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মো. সবুর খান বলেন, তোমরা এইসএসসি পাশ করেছ, এখন তোমদের সামনে এক বিশাল ভবিষ্যৎ হাতছানি দিয়ে ডাকছে। ভবিষ্যতে তোমরা কেউ ডাক্তার হতে চাইবে, কেউ প্রকৌশলী হতে চাইবে, কেউ আইনজীবী হতে চাইবে, কেউ বিসিএস ক্যাডার হতে চাইবে। যে যেটাই হতে চাও না কেন, সেই ভবিষ্যতের লক্ষ্য নির্ধারণ করার এখনই সময়। তাই লক্ষ্য নির্ধারণ করতে শিক্ষার্থীদেরকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান ড্যাফোডিল চেয়ারম্যান।

ড. মো. সবুর খান আরো বলেন, সবাই যে গতানুগতিক ক্যারিয়ার গড়বে তা নয়। এরমধ্যে অনেকেই উদ্যোক্তা হতে চাইবে। যারা উদ্যোক্তা হতে চায় তাদেরকে আগাম অভিনন্দন জানান তিনি। ড. মো. সবুর খান বলেন, একজন উদ্যোক্তা হাজারো মানুষের কর্মসংস্থান করতে পারে। তাই শিক্ষার্থীদেরকে উদ্যোক্তা হতে আহ্বান জানান তিনি। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদেরকে পিতা-মাতা ও শিক্ষকদেরকে সর্বদা শ্রদ্ধা জানানোর পরামর্শ দেন।

শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা । ছবি : নাদিম চৌধুরী

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নূরুজ্জামান বলেন, তোমরা এখন সোনালী স্বপ্নের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে রয়েছ। তোমাদেরকে এখনই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে ভবিষ্যতে তোমরা কে কোন ক্যারিয়ার গঠন করতে চাও। সেই ক্যারিয়ারের জন্য এখন থেকেই নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মোহাম্মদ নূরুজ্জামান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ড্যাফেডিল পরিবারের রয়েছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিসহ এগারোটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে শীর্ষ অবস্থানে তো রয়েছেই এমনকি আন্তর্জাতিক র‌্যাংকিংয়েও স্থান করে নিয়েছে। এসময় তিনি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির টাইম হায়ার এডুকেশন র‌্যাংকিং, কিউএস র‌্যাংকিং, গ্রিন মেট্রিক র‌্যাংকিং ইত্যাদিতে সম্মানজনক অবস্থানের কথা উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠান শেষে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজের শিক্ষার্থীরা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

Leave a Reply