ড্যাফোডিলে ‘সাংবাদিকতা ও যোগাযোগ মাধ্যমে ক্যারিয়ার’ শীর্ষক আলোচনা

ড্যাফোডিলে ‘সাংবাদিকতা ও যোগাযোগ মাধ্যমে ক্যারিয়ার’ শীর্ষক আলোচনা

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ ও ডিআইইউ কমিউনিকেশন ক্লাবের আয়োজনে ‘সাংবাদিকতা ও যোগাযোগ মাধ্যমে ক্যারিয়ার’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা গতকাল (২০ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫২ মিলনায়তনে  অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের প্রধান ড. সেলিম আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান, সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সাখাওয়াত আলী খান, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) প্রচার ও যোগাযোগ বিভাগের পরিচালক রিজওয়ানুল আলম, ডিবিসি টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু ও সময় টেলিভিশনের বার্তা প্রধান তুষার আব্দুল্লাহ। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শেখ মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম ও সহকারী অধ্যাপক ড. তৌফিক ই এলাহী।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান বলেন, সব সময় চাকরি খুঁজলে চাকরি পাওয়া যায় না। চাকরির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে হয়। ক্যারিয়ার এমন একটি জিনিস যা কেউ গড়ে দেয় না। নিজেকেই গড়ে নিতে হয়। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, চাকরির জন্য নিজেকে তৈরি করো, চাকরিই তোমাকে খুঁজে নেবে।

সাংবাদিকতার ছাত্র বলে পেশাজীবনেও সাংবাদিক হতে হবে এমনটা মনে করেন না অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান। তিনি বলেন, সাংবাদিকতা ছাড়াও এখন বিজ্ঞাপনী সংস্থাসহ বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। সেসব ক্ষেত্রেও সাংবাদিতার শিক্ষার্থীদের পেশা গড়ার পরামর্শ দেন অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান।

অধ্যাপক ড. সাখাওয়াত আলী খান বলেন, যোগাযোগ একটি প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল বিষয়। এজন্য নিজেকে সব সময় আপ টু ডেট রাখতে হয়। এখন যেহেতু তথ্যপ্রযুক্তির যুগ, তাই প্রযুক্তির ব্যাপারেও নিরজেকে হালনাগাদ রাখতে হবে। অধ্যাপক ড. সাখাওয়াত আলী খান বলেন, গণমাধ্যমের পাশাপাশি এনজিও সেক্টরেও ক্যারিয়ার গড়তে পারে সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীরা।

টিআইবির প্রচার ও যোগাযোগ বিভাগের পরিচালক রিজওয়ানুল আলম বলেন, যোগাযোগ একটি ব্যবস্থাপনার উপকরণ। কোনো প্রতিষ্ঠানের সাফল্য অনেকাংশে নির্ভর করে এই যোগাযোগ বিভাগের ওপর। এজন্য ব্যাংক, বীমা থেকে প্রায় সব ধরনের প্রতিষ্ঠান এখন যোগাযোগ বিভাগ খুলছে। যোগাযোগ মাধ্যমে ক্যারিয়ার গড়তে হলে শিল্প, সাহিত্য, বিজ্ঞান, ইতিহাস থেকে শুরু করে সব বিষয়ে জ্ঞান রাখতে হবে। এটি একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। এ পেশায় ভালো করতে হলে নিজের যোগাযোগ দক্ষতা বাড়াতে হবে বলে অভিমত দেন রিজওয়ানুল আলম।

ডিবিসির প্রধান নির্বাহী মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, কর্মজীবনে সফল হতে হলে তিনটি বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এক. নিজের ব্যক্তিত্ব গড়ে তোলা, দুই. পৃথিবীর কোথায় কী ঘটছে সে বিষয়ে নিজেকে হালনাগাদ রাখা এবং তিন. প্রযুক্তির ব্যবহার জানা। এরপর তিনি শিক্ষার্থীদেরকে ভালোভাবে বাংলা ভাষা আয়ত্ব করার পরামর্শ দেন এবং বলেন, বাংলা ঠিকমতো না শিখতে পারলে ইংরেজিও ভালোমতো শেখা যায় না। তাই আগে মাতৃভাষায় দখল অর্জন জরুরি।

সময় টেলিভিশনের বার্তা প্রধান তুষার আব্দুল্লাহ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শুধু ক্লাসরুমের ভিতর নিজেকে আবদ্ধ রাখলে চলবে না, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গেও জড়িত হতে হবে। চারপাশের মানুষের সঙ্গে মিশতে হবে। মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করা শিখতে হবে এবং মানুষের মনস্তত্ত্ব বোঝা শিখতে হবে।

তুষার আব্দুল্লাহ আরও বলেন, এখনকার শিক্ষার্থীরা গান শোনেন না, চলচ্চিত্র দেখেন না, গল্প-কবিতা-উপন্যাস পড়েন না, ছবির প্রদর্শনীতে যান না। তারা কি নিয়ে ব্যস্ত তারা সেটা নিজেও জানে না। এভাবে আসলে নিজের উন্নয়ন হয় না। ক্যারিয়ারে সাফল্য পেতে হলে নিজের উন্নয়ন ঘটানোর পরামর্শ দেন তুষার আব্দুল্লাহ।  

Leave a Reply