ঢাবিতে জাতিসংঘের ছায়া অধিবেশন

ঢাবিতে জাতিসংঘের ছায়া অধিবেশন

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

জাতিসংঘের অধিবেশন বসছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই অধিবেশনে বাংলাদেশসহ জাতিসংঘভুক্ত অন্যান্য দেশের সদস্যরা অংশ নেবেন। প্রায় পাঁচশ ডেলিগেট নিয়ে বসছে এবারের অধিবেশন। প্রিয় পাঠক খবরটি পড়ে ভড়কে গেলেন বুঝি? জাতিসংঘের অধিবেশন ঢাকায় হওয়ার কথা নয়, তাই তো? হয়তো কোনো দিন জাতিসংঘের অধিবেশন ঢাকায়ও বসতে পারে। তবে সেটা সুদূরে। তবে খবরটা কিন্তু একদম ডাহা মিথ্যে নয়। জাতিসংঘের অধিবেশন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বসছে ঠিকই। কিন্তু সেটা জাতিসংঘের আদলে। অর্থাত্ জাতিসংঘের ছায়া অধিবেশন। এই অধিবেশনের আয়োজক ঢাকা ইউনিভার্সিটি ন্যাশনাল মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনস (ডানমুন)। জাতিসংঘ যেমন তার সদস্যদের নিয়ে অধিবেশন করে। তেমনি দেশ-বিদেশের ডেলিগেট নিয়ে ছায়া অধিবেশনের আয়োজন করা হয়েছে। জাতিসংঘের মতোই অধিবেশনে বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোচনা হবে। যেমন—জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশ রক্ষা আন্দোলন, স্বাস্থ্য, চিকিত্সা, মানবাধিকারসহ অনেক বিষয় আলোচনায় উঠে আসবে। যেমনটা হয় জাতিসংঘের অধিবেশনে।

গত ১৯ ডিসেম্বর বেলা তিনটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনস অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃক আয়োজিত আন্তর্জাতিক মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনস (ডানমুন) ২০১৬ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নাসরীন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন, ঢাকা আহসানিয়া মিশনের পরিচালক এবং ঢাকাস্থ জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্র (ইউএনআইসি ঢাকা)-এর সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী আলি রেজা এবং ডানমুন ২০১৬-এর মহাসচিব আশাবুল মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনস ২০১৬ সম্মেলন হচ্ছে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অনুকরণে আয়োজিত একটি সম্মেলন, যেখানে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের মতো দেশ ও দেশের বাইরে থেকে আগত শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন রাষ্ট্রের প্রতিনিধি হিসেবে অংশ নেন। ডানমুন ২০১৬ সম্মেলনে কানাডা, ভারত, নেপাল ও আফগানিস্তানসহ বহু দেশের সাত শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে, শান্তিপূর্ণ সহবিদ্যমানতার লক্ষ্যে এসডিজি বাস্তবায়নের সূচনা করা।

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ন্যাশনাল মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনস অ্যাসোসিয়েশন ২০১২ সাল থেকে এই সম্মেলনের আয়োজন করে আসছে। আগামী ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলা এই সম্মেলনটির সঙ্গে সহযোগী হিসেবে রয়েছে এশিয়ার সর্ববৃহত্ মডেল ইউএন সম্মেলন কিটমুন, ইস্ট এশিয়া স্টাডি সেন্টার এবং জাতিসংঘ তথ্য কেন্দ্র ঢাকা।

তরুণদের মধ্যে অনেকে আছেন স্বপ্নচারী। স্বপ্ন দেখতে ও তা বাস্তবায়ন করতে তারা বদ্ধপরিকর। তাদের কেউ কেউ হয়তো ভবিষ্যতে জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন। তাদের জন্য এই ছায়া অধিবেশন পথ দেখাবে। কী করে স্বপ্নকে লালন করতে হয় সেটাও জানিয়ে দেবে।favicon59-4

Leave a Reply