অনলাইন কনফারেন্সের মাধ্যমে ‘আন্তর্জাতিক সুখ দিবস’ উদযাপন

অনলাইন কনফারেন্সের মাধ্যমে ‘আন্তর্জাতিক সুখ দিবস’ উদযাপন

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ) ও ফিলিপাইনের লাইসিয়াম অব দ্য ফিলিপাইনস বিশ্ববিদ্যালয়ের (এলপিইউ) শিক্ষার্থীরা যৌথভাবে ‘আন্তর্জাতিক সুখ দিবস’ উদযাপন করেছে। দিবসটি উপলক্ষে আজ ২০ মার্চ রাজধানীর সোবহানবাগে অবস্থিত ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রধান ক্যাম্পাসে এক অনলাইন কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। এতে ডিআইইউ ও এলপিইউ-এর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

স্কাইপি’র মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক এ.এম.এম. হামিদুর রহমান।  অপরদিকে ফিলিপাইনের লাইসিয়াম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একঝাঁক শিক্ষার্থী নিয়ে যোগ দেন প্রভাষক এজাজ-উর-রহমান সজল। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক অধ্যাপক ড. ফখরে হোসেন, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাহিদ কায়সার এবং ড্যাফোডিল স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্সের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফাহমি হাসান।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠানে ডিআইইউ ও এলপিইউ-এর শিক্ষার্থীরা পরষ্পরের মধ্যে দু’দেশের শিক্ষা, সংস্কৃতিসহ নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। তারা বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদেরকে ফিলিপিনো ভাষায় গান গেয়ে শোনান। বিপরীতে ডিআইইউ শিক্ষার্থীরাও তাদেরকে ‘ধনধান্যে পুষ্পেভরা’ শীর্ষক দেশাত্মবোধক গান গেয়ে শোনান। উল্লেখ্য, ডিআইইউ ও এলপিইউ-এর মধ্যে শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিনিময় প্রকল্প সমঝোতা চুক্তি রয়েছে। সেই প্রকল্পের অংশ হিসেবে এ অনলাইন কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক এজাজ-উর-রহমান সজল বর্তমানে ফিলিপাইনের লাইসিয়াম অব দ্য ফিলিপাইনস বিশ্ববিদ্যালয়ে অতিথি শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন।

২০১৩ সাল থেকে জাতিসংঘ ২০ শে মার্চকে ‘ইন্টারন্যাশনাল ডে অব হ্যাপিনেস’ হিসেবে পালন করে আসছে। এবারে দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘লেটস্ ক্রিয়েট এ হ্যাপিয়ার ওয়ার্ল্ড টুগেদার’।favicon59-4

Leave a Reply