ক্যারিয়ার গড়ুন মেডিকেল টেকনোলজিতে

ক্যারিয়ার গড়ুন মেডিকেল টেকনোলজিতে

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

বর্তমানে দেশে প্রায় চার কোটি শিক্ষিত বেকার অত্যন্ত হতাশা ও প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে দিন যাপন করছে। কর্মসংস্থান ও চাকরির সুযোগ সৃষ্টির জন্য টেকনোলজি শিক্ষার গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরই সাথে তাল মিলিয়ে স্বাস্থ্য প্রযুক্তি শিক্ষায় দক্ষ জনবল তৈরীর মাধ্যমে সম্মানজনক চাকরির লক্ষ্যকে সামনে রেখে এসপিকেএস মেডিকেল অ্যাসিস্টেন্ট ট্রেনিং স্কুল, এসপিকেএস ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি, এসপিকেএস মেডিকেল ইনস্টিটিউট এবং পল্লবী নার্সিং ইনস্টিটিউট ৪ বছর মেয়াদী মেডিকেল অ্যাসিস্টেন্ট কোর্স, ১ বছর মেয়াদী ল্যাবরেটরী, ডেন্টাল, ফিজিওথেরাপি, নার্সিং, ফার্মেসী ও প্যারামেডিকেল কোর্স, ৩ বছর মেয়াদী নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারী, মিডওয়াইফারী কোর্স চালু করেছে।

প্রতি বছর জুন সেশনে এখানে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। মেডিকেল অ্যাসিস্টেন্ট কোর্সে ভর্তির জন্য জীববিজ্ঞানসহ এসএসসি বা দাখিল (বিজ্ঞান) পরীক্ষায় জিপিএ ২.৫০, মেডিকেল টেকনোলজি কোর্সে ভর্তির জন্য এসএসসি বা দাখিলে জিপিএ ২.৫০, নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারী কোর্সে ভর্তির জন্য এসএসসি’তে ২.২৫, এইচএসসি’তে ২.৫০ থাকতে হবে। প্রতিষ্ঠানটি ঢাকা মহানগরের মিরপুর-১২ বাসস্ট্যান্ডে আন্তর্জাতিক মানের সুবিশাল ক্যাম্পাসে অবস্থিত। আরও জানতে যোগাযোগ করতে পারেন ০১৭৫৮-৭২৪৭২৫ নম্বরে। প্রতিষ্ঠানটিতে রয়েছে মেডিকেল পাঠ্য ও গ্রন্থ সমৃদ্ধ সুবিশাল গ্রন্থাগার। রয়েছে আধুনিক মেডিকেল যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ উন্নতমানের ল্যাবরেটরি। এনাটমি, ফিজিওলজি, কমিউনিটি মেডিসিন, সার্জারী, পদার্থ, রসায়ন, বায়োলজি, ডেন্টাল, ফার্মেসী, ফিজিওথেরাপী এবং প্যাথলজিসহ সুবিশাল ল্যাব।

শিক্ষার্থীদের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে ইন্টার্নী করার ব্যবস্থা। এ ছাড়া অনলাইনের সুবিধাসহ অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব, পৃথক ইন্টারনেট সার্ভিস এবং ক্লাসরুমে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে শিক্ষাদানের ব্যবস্থাও আছে এখানে। এসপিকেএস থেকে এ পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী দেশে-বিদেশে বিভিন্ন হাসপাতাল, এনজিও ক্লিনিক, স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ফার্মাসিউটিক্যাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চাকরি করছে। বর্তমানে এই মুহূর্তে দেশের বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী হাসপাতাল ছাড়াও এনজিও সেক্টরে কয়েক লক্ষ মেডিকেল অ্যাসিস্টেন্ট, প্যারামেডিক এবং মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। প্রফেশনাল হিসেবে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া, কানাডায় ইমিগ্রান্ট ভিসা পাবেন। এছাড়া ডিপ্লোমা পাসের পর টেকনোলজিস্টদের দেশে-বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর কোর্স করার সুযোগ রয়েছে।favicon59-4

Leave a Reply