ক্রিয়েটিভ টেকনোলজিতে ক্যারিয়ার

ক্রিয়েটিভ টেকনোলজিতে ক্যারিয়ার

  1. ক্যারিয়ার ডেস্ক

বর্তমান যুগ হল প্রযুক্তির যুগ। বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ কোন না কোনভাবে প্রযুক্তির সাথে জড়িত। আমরা শুধু প্রযুক্তি ব্যাবহার  করে থাকি কিন্তু এর পেছনে র‍য়েছে অনেক দক্ষ লোক। যাদের কল্যানে আমরা প্রযুক্তি নিয়ে মাতামাতি করি।

আজ পরিচয় করিয়ে দিব এমন একটি বিষয়ের সাথে যেটাতে পড়লে আপনিও হতে পারেন একজন দক্ষ প্রযুক্তিবিদ।

বিষয়টি হচ্ছে মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি সংক্ষেপে (এমসিটি)। পড়ানো হয় দেশের একমাত্র ড্যাফোডিল আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ে।

কোর্স আউটলাইন  

গ্রাফিক্স ডিজাইন, টু-ডি অ্যান্ড থ্রি-ডি অ্যানিমেশন, ভিডিও প্রোডাকশান, ওয়েভ ইঞ্জিনিয়ারিং, অডিও ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যান্ড এডিটিং, এবং স্ট্রাকচার্ড প্রোগ্রামিং সহ ১২ সেমিস্টারে ৫৯ টি কোর্স সম্পন্ন করা হয়। চার মাসের সেমিস্টারে ৫ টি করে কোর্স সম্পন্ন করা হয়।

খরচ

এ বিষয়ে পড়তে হলে গুনতে হবে ভর্তি ফি সহ মোট ৬ লক্ষ টাকার মত।

ক্যারিয়ার

এ বিষয়ে পড়াশোনা করে ভাল দক্ষতা অর্জন করতে পারলে আপনাকে বসে থাকতে হবেনা কখনও।এ বিষয়ে পড়াশোনা করে আপনি হতে পারেন গ্রাফিক্স ডিজাইনার, প্রোগ্রমার, ভিডিও এডিটর, অ্যানিমেশন ক্রিয়েটর। টেলিভিশন চ্যানেল, অডিও ভিডিও প্রোডাকশান, অ্যাড হাউজ এসব জায়গায় দক্ষ জনবলের প্রয়োজন থাকে সব সময়।

শুধু গাফিক্স ডিজাইন ভালভাবে জানলেও আপনি নিজেই একটা দোকান খুলে বসতে পারবেন। বিয়ের কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, ক্যালেন্ডার সহ ইত্যাদি অনেক কিছু তৈরি করে আপনিও অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

এছাড়া টু ডি-থ্রী ডি অ্যানিমেশনের দক্ষ জনবলের অনেক অভাব। এ কাজ জানলে সহজেই ভাল কোন জায়গায় ভাল বেতনে চাকরি করতে পারবেন।

সবচেয়ে বড় সুযোগ হল উপরের যে কোন একটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করে আপনি ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে ঘরে বসেই ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

মোদ্দা কথা এ বিষয়ে পড়ে আপনি দক্ষতা অর্জন করতে পারলে চাকরি আপনাকেই খুজবে, আপনাকে কখনো চাকরি খুজতে হবেনা।

ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির  ঠিকানায় গিয়ে এ বিষয় সম্পর্কে আরও বিশদভাবে জানতে পারবেন।favicon59-4

Leave a Reply