তথ্যপ্রযুক্তিতে শিক্ষাবৃত্তি

তথ্যপ্রযুক্তিতে শিক্ষাবৃত্তি

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

এ যুগে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে ভালো জ্ঞান না থাকলে যেমন পিছিয়ে পড়বেন, তেমনি চাকরি ক্ষেত্রে পড়বেন বেকায়দায়। প্রযুক্তি বিষয়ে জ্ঞান না থাকলে আপনি যেমন ভালো কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি পাবেন না, পেলেও থাকবেন সবার থেকে পিছিয়ে। তাই তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে নিজেকে মানিয়ে নিতে হলে থাকতে হবে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় জ্ঞান। চাকরি ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ ব্যক্তিদেরই অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। যে কারণে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে জ্ঞান থাকাটা জরুরি হয়ে পড়েছে। আর এ জ্ঞান বাড়াতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। এ রকম একটি প্রশিক্ষণের আয়োজন করে থাকে ইসলামি ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক বাংলাদেশ ইসলামিক সলিডারিটি এডুকেশনাল ওয়াকফ (আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউ) এটি একটি শিক্ষা প্রকল্প দেশের সুবিধাবঞ্চিত মুসলমান যুবসমাজের শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়নের লক্ষে কাজ করে থাকে। তাদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। যাতে তারা স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারে পাশাপাশি সমাজ ও দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে। তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিগত ১৪ বছর ধরে বিনা ফিতে দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদানপূর্বক আন্তর্জাতিক মানের প্রফেশনাল ডিপ্লোমা প্রদান করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটি এ পর্যন্ত ৮ হাজার ২৭৭ জন প্রশিক্ষণার্থীকে সফলভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছে যার মধ্যে অধিকাংশই দেশে-বিদেশে তথ্যপ্রযুক্তি পেশায় কাজ করছে। প্রতি বছর চারটি ধাপে এখানে প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রতিষ্ঠান দুটি তাদের আইটি স্কলারশিপের আওতায় ৩৫তম রাউন্ডে ১ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। আবেদন করা যাবে আগামী ৩০ এপ্রিলের মধ্যে। চাইলে আপনিও আবেদন করতে পারেন।

আবেদনের যোগ্যতা : এ প্রশিক্ষণ কোর্সে ভর্তি হতে চাইলে প্রার্থীকে স্নাতক, ফাজিল, মাস্টার্স, কামিল, ডিপ্লোমা পাস হতে হবে। মাস্টার্সে অধ্যয়নরত প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন। প্রার্থীকে এসএসসি ও এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় ২য় বিভাগে বা জিপিএ ২.২৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। চাকরিজীবীদের আবেদনের সুযোগ নেই।

প্রশিক্ষণের বিষয় : আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউতে যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় তা হচ্ছে; আর্কিটেকচারাল অ্যান্ড সিভিল ক্যাড, কম্পিউটার অ্যাসিসট্যান্ড অ্যানিমেশন, ডেটাবেইস ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ওরাকল), এন্টারপ্রইজ সিস্টেম অ্যানালাইসিস অ্যান্ড ডিজাইন (সি#. নেট), এন্টারপ্রইজ সিস্টেম অ্যানালাইসিস অ্যান্ড ডিজাইন, গ্রাফিক্স অ্যানিমেশন অ্যান্ড ভিডিও এডিটিং, নেটওয়ার্ক টেকনোলজিস এবং ওয়েব প্রেজেন সলিউশনস অ্যান্ড ইমপ্লিমেন্টশনস। কোর্সগুলো ১১ থেকে ১৩ মাস মেয়াদি। ক্লাস চলবে সপ্তায় ছয় দিন। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা অথবা বিকাল ৩টা থেকে ৭টা পর্যন্ত। প্রশিক্ষণ দেয়া হবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরের নির্বাচিত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে।

আবেদন প্রক্রিয়া ও ভর্তি : এ কোর্সে ভর্তির জন্য প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইট www.idb-bisew.org থেকে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। এ ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে ১০০ টাকা বিকাশের মাধ্যমে ওয়েবসাইটে উল্লিখিত নিয়মে পাঠাতে হবে। এ ছাড়া ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের যে কোনো শাখা থেকে ১০০ টাকার বিনিময়ে আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। আবেদনের পর প্রার্থীদের প্রতিযোগিতামূলক লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। এ বিষয়ে আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউর প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর জাহিদ আল মাহাদী বলেন, ‘প্রার্থীদের ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষার মাধ্যমেগণিত ও ইংরেজির সাধারণ দক্ষতা যাচাই করা হবে। এ পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে বাছাই করা হবে। এ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই কেবল প্রশিক্ষণ নেয়ার সুযোগ পাবেন। এ পরীক্ষা ঢাকা ও চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে।

সুযোগ-সুবিধা : এখানে ভর্তি হওয়ার পর প্রশিক্ষণার্থীকে কোনো খরচ বহন করতে হবে না। এখানে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে দেশের বড় বড় আইটি প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র কর্মকর্তারা। প্রশিক্ষণ ফি, বই, পরীক্ষা ফি বহন করবে প্রতিষ্ঠানটি। এ ছাড়া সফলভাবে কোর্স সম্পূর্ণকারীদের মাইক্রোসফট, ওরাকল ও জাভার মতো বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হতে ভেন্ডর সনদপত্র দিয়ে থাকে। যা দিয়ে দেশে-বিদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ পাওয়া সহজ হয়।

বিষয় নির্বাচন : আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউতে প্রার্থী কোন কোর্সে পড়বেন তা একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্ধারণ করা হয়। নির্বাচিত প্রশিক্ষণার্থীদের প্রথমে কম্পিউটারের মৌলিক বিষয়ে দেড় থেকে দুই মাসের একটি বেসিক কোর্স করানো হয়। ‘বিভিন্ন বিষয়ে পড়ালেখা করে আমাদের এখানে ভর্তি হয়। কেউ কম্পিউটার সম্পর্কে ভালো জানেন আবার কেউ কেউ কম জানেন তাই সবাইকে একটি নিয়ে আসার জন্য বেসিক কোর্সটি করানো হয়’ বলে জানান জাহিদ আল মাহাদী। এরপর বিষয় নির্ধারণ করা হয় কে কোন কোর্সে প্রশিক্ষণ নেবেন।

কাজের ক্ষেত্র : তথ্যপ্রযুক্তির ওপর প্রশিক্ষণ নিয়ে দেশে ব্যাংক, বীমা, বায়িং হাউসসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ রয়েছে। এ ছাডা বিদেশে রয়েছে কাজের সুযোগ রয়েছে। জাহিদ আল মাহাদীজানান, ‘আমরা দুই বছর পরপর চাকরির বাজার জরিপ করে দেখি কোন কোন বিষয়ের চাহিদা বেশি সেই অনুযায়ী আমাদের কোর্সগুলো ডিজাইন করে থাকি। এ কারণে এখান থেকে কোর্স করে বসে থাকার আশংকা কম। আমাদের এখানে থেকে যারা প্রশিক্ষণ নিয়েছে তার ৯০ শতাংশের ওপরে বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি পেশায় কাজ করছে। প্রাণিবিদ্যায় এমএসসি করে ১১তম ব্যাচে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন মো. রেজাউল করিম, কাজ করছেন দেশের প্রথম সারির একটি নিউজ পোর্টালে। তিনি বলেন, ‘আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউ-এর কোর্সগুলো বিশ্বমানের। যা অন্য কোথাও থেকে করতে গেলে অনেক টাকা লাগত। আমি মনে করি সাধারণ যে কোনো বিষয়ে লেখাপড়া করে আইডিবির এ কোর্স করে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব’।

বিস্তারিত জানতে : যোগাযোগ করতে পারেন। আইডিবি-বিআইএসইডাব্লিউ, আইডিবি ভবন (৫ম তলা), শেরেবাংলা নগর, ঢাকা-১২০৭। ফোন : ৯১৮৩০০৬। দেখতে পারেন ওয়েবসাইট www.idb-bisew.orgfavicon59-4

Leave a Reply