‘নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন’

‘নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন’

মারুফ ইসলাম : চাকরির সাক্ষাৎকার টেবিলে প্রায়ই একটি প্রশ্ন করা হয়-‘আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন’। এই প্রশ্নটি প্রার্থীকে তার নিজের সম্পর্কে কিছু বলার সুযোগ করে দেয়। এটি এমন এক প্রশ্ন, যে প্রশ্নের কোনো ভুল উত্তর নেই। প্রার্থী যা উত্তর দেবেন সেটাই সঠিক। তবে মনে রাখা প্রয়োজন, এই প্রশ্নের ভুল উত্তর নেই বলে যা খুশি তাই উত্তর দেওয়া অনুচিত। কারণ নিজেকে উপস্থাপন করা সহজ কম্ম নয়। চলুন দেখে নেওয়া যাক, কীভাবে এই আপাত সরল প্রশ্নটিকে মোকাবেলা করা যেতে পারে।


প্রশ্নটির মাধ্যমে নিয়োগকর্তা মূলত প্রার্থীর সৃজনী শক্তি, কল্পনাশক্তি এবং উদ্ভাবনী শক্তি সম্পর্কে জানার চেষ্টা করেন। তাই এ প্রশ্নের উত্তরে আপনার যা করা প্রয়োজন তা হচ্ছে, জীবনবৃত্তান্তের যে বিষয়গুলো তাদের স্মরণ করাতে চান সেগুলো তুলে ধরুন। কোথায় পড়াশোনা করেছেন, কী খেতে পছন্দ করেন, কার বই পড়তে ভালোবাসেন- এসব তথ্য দিয়ে অযথা সময় নষ্ট না করাই ভালো। আপনার নিজের সম্পর্কে বলা মানে আপনার পছন্দ বা অপছন্দের বিষয় সম্পর্কে নয়, বরং আপনি কী ধরনের কর্মক্ষেত্র পছন্দ করেন বা কী বিষয় নিয়ে আপনি পড়াশোনা করেছেন, যে পদের জন্য আবেদন করেছেন সেই পদের জন্য আপনি কেন উপযুক্ত সেসবই হলো এই প্রশ্নের যথাযোগ্য উত্তর।

সহজ ভাষায়, প্রশ্নকর্তা যা জানতে চাইছেন, আপনাকে তাই-ই জানাতে হবে | উত্তর দেওয়ার সময় চেষ্টা করবেন প্রশ্নকর্তা যেন আপনার সঙ্গে সমানভাবে অংশগ্রহণ করেন সেটা নিশ্চিত করতে | তাতে তার পছন্দ-অপছন্দ, প্রয়োজন সম্পর্কে আপনার একটা ধারণা তৈরি হয়ে যাবে | সাক্ষাৎকারগ্রহীতা এমন একজনকে খুঁজছেন যে তার দুর্বলতা এবং ক্ষমতাসমূহ সম্পর্কে অকপটে বলতে পারে।

এক্ষেত্রে দুর্বলতা ব্যাখ্যা এমনভাবে দিন যেন সেটি আপনার ভালো দিকই তুলে ধরে । যেমন: আলসেমি, বিশৃঙ্খলা আপনার সমস্যা। আপনার দুর্বলতা হিসেবে এগুলো না বলে বলুন, আপনার দুর্বলতা হচ্ছে আপনি খুব কাজপাগল । কাজ করতে গেলে দিন-রাতের হুঁশ থাকে না আপনার।favicon594

Leave a Reply