মাত্র ৬টি কৌশল !

মাত্র ৬টি কৌশল !

  • শিমি আক্তার

দিন রাত মিলে সময় মাত্র ২৪ ঘণ্টা! কাজ যা করার এই সময়ের মধ্যেই করতে হয়। সুতরাং কতটা দক্ষতার সঙ্গে আপনার সময়কে কাজে লাগাতে পারছেন তা নিয়ে বিস্তর ভাবনার প্রয়োজন আছে বৈ কি! কারণ আপনার উৎপাদন ক্ষমতার সঙ্গে আপনার ব্যবসায়ের সাফল্য জড়িত। অতএব আসুন জেনে নেওয়া যাক উৎপাদন বাড়ানোর কিছু কৌশল।


১.         একই কাজ বারবার না করা

একই কাজ বারবার করার ফলে অনেক সময়ের অপচয় হয়ে থাকে। পরে করার কথা চিন্তা করে আপনার ই-মেইল চেক না করে বা ফোন কল না  ধরে জমা করে রাখার দরকার নেই। কোনো বিষয় দৃষ্টি গোচর হওয়ার পর গ্রহণ বা বর্জন যাই করুন সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিন।

২.         প্রয়োজনে অপছন্দের খাবার গ্রহণ

কখনো কখনো অপছন্দের খাবারও খেতে হয়। ব্যাপারটা এমন য়ে খাবারটা আপনার পছন্দ নয় বলে যদি ফিরিয়ে দেন তবে পুরোটা সময় হয়ত আপনাকে উপোস থাকতে হবে। তারচেয়ে এই কি ভালো নয় যে, অপছন্দের খাবার হলেও সামান্য খেয়ে ক্ষুধা নিবারণ করা? উদাহরণটি ব্যবসায়ের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। অর্থাৎ প্রয়োজনে অপছন্দের কাজ করা।

৩.        প্রতিকুলতার বিরুদ্ধে সংগ্রাম

প্রয়োজনে আপনাকে প্রতিকুলতার বিরুদ্ধে সংগ্রাম  বা অন্যায়ের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা জরুরী হয়ে উঠতে পারে। এজন্য আপনি দ্রুত কোনো ব্যবস্থা নিতে চাইলে বিভিন্ন ধরণের সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন। মুলকথা হলো আপনাকে হয় পদক্ষেপ নিতে হবে নতুবা বাদ দিতে হবে। না হলে দেখবেন আপনার কাজের সময় বা দিন এমনকি সপ্তাহ পেরিয়ে যাচ্ছে ঠিকই কিন্তু কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজই হচ্ছে না। এককথায় পরিস্থিতি থেকে আপনাকে ভালো কিছু হয় নিতে হবে না হয় ছেড়ে দিতে হবে। তা না হলে আপনার কাজে কোনো গতি আসবে না।

৪.         প্রয়োজনে ‘না’ বলা

‘না’ একটি শক্তিশালী শব্দ। এটা আপনাকে লক্ষ্য অর্জণে সহায়তা করবে। যখন ‘না’ বলা প্রয়োজন হবে তখন কিছু ভাষা পরিহার করুন যেমন -‘আমার মনে হয় না আমি পারব’ বা ‘আমি নিশ্চিত নই’ ইত্যাদি। ‘না’ বলাটা হচ্ছে আপনার বর্তমান প্রতিশ্রুতির উপর নতুন প্রতিশ্রুতি যা আপনাকে সফলতা অর্জনে সাহায্য করবে। সানফ্রান্সিসকোর ক্যালির্ফোনিয়া ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় দেখা গেছে যে ‘না’ বলা যতটা কঠিন তারচেয়ে অনেক বেশি কঠিন এর কারণে চাপ নেওয়া, অবসাদ বা হতাশার মধ্যে দিয়ে সময় পার করা। আপনি ‘না’ বলা শিখলে এটা আপনার মনের গতি যেমন বাড়বে তেমনি বাড়বে আপনার উৎপাদন ক্ষমতাও।

৫.         সঠিক সময়ে মেইল চেক

যদি আপনি একই কাজ দ্বিতীয়বার করতে না চান তাহলে কোনো বাধা ছাড়াই ধারাবাহিকভাবে সময় মেনে ইমেইল চেক করুন। তাৎক্ষণিকভাবে ইমেইলের সুবিধা আপনাকে নিতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ ক্রেতা, বিক্রেতা বা অন্যান্যদের জন্য  আপনাকে বিশেষ এলার্ট সেট করতে হবে। এমনকি আপনি অটোরেসপন্ডার সেট আপ করতে পারেন যাতে আপনি আবার কখন ইমেইল চেক করবেন তা তারা বুঝতে পারে।

৬.        বহুমুখী কাজ পরিহার

স্বাভাবিক পদ্ধতিতে কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য একই সাথে বহুমুাখী কাজ পরিহার করতে হবে। এটা প্রকৃতপক্ষে উৎপাদন ক্ষমতা নষ্ট করে। স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় বলা হয়েছে যে, একই সময়ে একটি কাজ করার চেয়ে অধিক কাজ করার মধ্যে সুফলতা কম।  একাধিক কাজ আপনার দক্ষতা এবং কার্যক্ষমতা হ্রাস করে। কেননা আপনার মস্তিস্ক একবারে একটি বিষয়ের উপরই সঠিকভাবে মনোযোগ দিতে পারে। যখন আপনি একবারে দুইটা জিনিস করার চেষ্টা করেন তখন উভয় কাজ সফলভাবে সম্পন্ন করার  জন্য  আপনার মস্তিস্কে ঘাটতি থেকে যায়। দুইটা কাজ একই সাথে না করে একটা একটা করে শেষ করুন।

সূত্র : ফোর্বসfavicon59

Leave a Reply