বিশ্ব ব্যাংকের বৃত্তিতে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং

বিশ্ব ব্যাংকের বৃত্তিতে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

উন্নত বিশ্বের ন্যায় কারিগরি এবং বৃত্তিমূলক শিক্ষার জোয়ার এখন বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থায়। তারই ধারাবাহিকতায় ড্যাফোডিল ফ্যামিলির অন্যতম প্রতিষ্ঠান ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট (ডিপিআই) যা কিনা দেশের সর্ববৃহৎ ও অত্যাধুনিক কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছে কারিগরি বোর্ডের অধীনে চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কার্যক্রম। ডিপিআই আন্তর্জাতিক ভাষা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্রিটিশ কাউন্সিলের সাথে ছাত্র-ছাএীদের ইংরেজি ভাষার মান উন্নয়নের জন্য যৌথভাবে পরিচালনা করে আসছে বুক রিডিং কর্মসূচী যেটি বেসরকারি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে যোগ করেছে নতুন মাত্রা। এছাড়া দেশের সর্ব বৃহৎ চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান জব্সবিডি.কম এর সহায়তায় শিক্ষার্থীদের ইর্ন্টানশীপ ও চাকুরি প্রাপ্তিতে নিশ্চিত সহায়তা প্রদান করে থাকে। এ প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষার্থীদের  পড়াশুনা শেষ করার পরেও রয়েছে ড্যাফোডিল গ্রুপ  কর্তৃক পরিচালিত অন্যতম প্রতিষ্ঠান ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটিতে সল্পতম সময়ে বৃত্তি সহকারে সান্ধ্যকালিন ব্যাচে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করার বিশেষ সুযোগ। এডমিশন.এসি এর মাধ্যমে রয়েছে সহজেই বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ। বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় সকল শিক্ষার্থী পাবে মাসিক ৮০০ টাকা বৃত্তি।

একজন ছাত্রের ভালো ফলাফল থাকা সত্ত্বেও চাকরি বাজারে সাফল্য অর্জন করতে ব্যর্থ হয় শুধুমাত্র কর্ম নির্ভর শিক্ষার অভাবে। অনেক সময় বেকারত্বের অভিশাপও বরণ করতে হয়। অথচ প্রতিযোগিতা মূলক চাকরির বাজারে প্রতিনিয়ত প্রতিযোগিতা যেভাবে বাড়ছে একইভাবে বাড়ছে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগও। বর্তমান সময়ে একজন ছাত্র পড়ানা শেষ করে দেশে বা দেশের বাইরে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ পাচ্ছে। এছাড়া চাকরির পাশাপাশি উদ্যোক্তা হয়ে গড়ে উঠতে ডিপিআই এর রয়েছে তরুণ উদ্যোক্তা ফান্ড। আর কর্মমূখী শিক্ষার মধ্যে সবচেয়ে যুগান্তকারী উন্নয়ন ঘটেছে কারিগরি শিক্ষা এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিল্পের। ডিপিআই এর শিক্ষার্থীদের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে আরো উন্নত করার লক্ষ্যে সকল শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ফ্রি ল্যাপটপ। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বর্তমানে ডিপিআই এর  শিক্ষার্থীরা সর্ব প্রথম পলিটেকনিক হিসেবে রোবটিক্স নিয়ে গবেষণা করছে এবং বিভিন্ন জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে আসছে। দরিদ্র কিন্তু মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে আর্থিক সহায়তা ব্যবস্থা। ডিপিআই মেয়ে শিক্ষার্থীদের কারিগরি শিক্ষায় উৎসাহিত করার জন্য দিচ্ছে বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ।

রফতানী আয়ের সিংহভাগ অর্জন  করছে তৈরী পোশাক শিল্পের সাথে জড়িত হাজারো শ্রমিক এবং সুদক্ষ বস্ত্র প্রকৌশলীরা। কারিগরি শিক্ষার বদৌলতে আজকের এই ডিপ্লোমা প্রকৌশলীরা আমাদের এই শিল্পটিকে বিশ্বের তীব্র প্রতিযোগীতামূলক বাজারে টিকিয়ে রেখেছে দক্ষতা ও গর্বের সাথে।

আধুনিক সভ্যতার নগরায়নের মূল কেন্দ্রবিন্দু সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং। আজকের এই সুরম্য নগরায়ন আধুনিকতার নন্দনে নন্দিত করেছে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত স্থাপত্যবিদ ও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারা।

বিদ্যুতের আলোক সজ্জায় সারা পৃথিবী আজ আলোকিত। ইলেকট্রিক্যাল ইন্ড্রাসট্রিতে তৈরী হয় হাজারো কৃত্রিম মানব যা দৈনন্দিন জীবনকে করে আরো সহজ ও সাবলিল। এ শুধুই সম্ভব ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স জ্ঞানের উৎকর্ষতায় । সেটিও সম্ভব হয়েছে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের অদম্য ইচ্ছা ও মেধার কারণে।

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট (ডিপিআই) বিভিন্ন প্রোগ্রামে ডিপ্লোমা ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণে এক নব দিগন্তের সূচনা করতে সমর্থ হয়েছে। তাদের মধ্যে চার বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার, টেলিকমিউনিকেশন, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স, টেক্সটাইল এবং সিভিল, আর্কিটেকচার প্রোগ্রামগুলির গ্রহণযোগ্যতা ইতিমধ্যেই চাকরি ক্ষেত্রে আশাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। একজন শিক্ষার্থী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাসের পর চাকরির পাশাপাশি সান্ধ্যকালীন ব্যাচে দেশী-বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্বল্পতম সময়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বিএসসি/এমএসসি/এমবিএ ডিগ্রী অর্জনের সুযোগ লাভ করতে পারেন।

ডিপ্লেমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রামের মেয়াদ ও ভর্তির যোগ্যতা

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রম ৪ বছর মেয়াদি ৮ সেমিষ্টারে সম্পন্ন হয়, প্রতি সেমিষ্টার ৬ মাস অন্তর বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নিয়ন্ত্রণে পরিচালিত হয়। ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স সাফল্যের সঙ্গে সম্পন্ন করার পর শিক্ষার্থীগণ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং সনদপএ লাভ করে।

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা এসএসসি/ সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ২.০ পেয়ে পাশ করতে হবে। এইচএসসি উওীর্ণ/অনুওীর্ণ বা পরীক্ষার্থীরাও ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন, ভর্তির জন্য ছাএ/ছাএীদের বয়স ও পাসের সন বিভাগ শিথিলযোগ্য।

অফিস চলাকালিন সময়ে ভর্তির আবেদনপত্র, তথ্যবিবরণী ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রতিষ্ঠান হতে সংগ্রহ করতে হবে। ভর্তির আবেদনপত্র বোর্ড নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা দিতে হবে। নির্বাচিত প্রার্থীদের এসএসসি/সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র/ ট্রান্সক্রিপ্ট ৪ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভর্তি হতে হবে।

গতানুগতিক ধারার বাইরে দেশের একমাত্র আধুনিক পলিটেকনিক কেন?

  • আর্থিক সুবিধাসহ স্বল্পতম সময়ে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটিতে সান্ধ্যকালিন ব্যাচে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করার বিশেষ সুযোগ।
  • চাকরি ও ইন্টার্নশীপ প্রাপ্তির নিশ্চয়তা
  • তুলনামূলকভাবে স্বল্প ব্যয়ে মানসম্পন্ন শিক্ষা
  • বিদেশে উচ্চ শিক্ষায় সহযোগীতা
  • বৃটিশ কাউন্সিলের তত্ত্বাবধানে ইংরেজী শেখার সুযোগ
  • তরূণ উদ্যোক্তা উন্নয়নে বিশেষ ফান্ড

বর্তমানে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার, টেলিকমিউনিকেশন, ইলেক্ট্রিক্যাল, টেক্সটাইল, গার্মেন্টস ডিজাইন এন্ড প্যাটার্ন মেকিং, আর্কিটেকচার ও ইন্টেরিয়ার ডিজাইন এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এ ভর্তি চলছে।

যোগাযোগ

ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট (ডিপিআই))

রোড# ১২, বাড়ী# ২/বি, মিরপুর রোড, ধানমন্ডি, ঢাকা-১২০৯,

ফোন: ৮১১০৮১৮, ০১৮৩৩১০২৮১০, ০১৭১৩৪৯৩২৪৬।

Web: www.dpi.ac , Email: Info@bsdi-bd.orgfavicon59-4

Leave a Reply