ইন্টার্নশিপ : তরুণদের কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের প্লাটফর্ম

ইন্টার্নশিপ : তরুণদের কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের প্লাটফর্ম

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

‘পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা আমার আজীবন স্মরণ থাকবে। শেখার জন্য এবং কর্মক্ষেত্রে আরও দক্ষ হয়ে উঠতে এই ধরনের সুযোগ দারুণ কাজে দেবে। আমি এই কার্যক্রমের একজন অংশীদার হিসেবে নিজেকে খুবই ভাগ্যবান মনে করি। মন্ত্রণালয়ে কাজ করার ধরন এবং পেশাদারী আচরণ শেখার এই সুযোগ আমাকে অন্যদের থেকে এগিয়ে দিয়েছে।’ ইয়াং বাংলার ভিশন ২০২১ ইন্টার্নশিপ কার্যক্রমের আওতায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কাটানো তিন মাস সময়ের কথা এভাবে ব্যক্ত করেছেন শরিফা সুলতানা।

ইয়াং বাংলার একটি অন্যতম ভিন্নধর্মী উদ্যোগ ‘ভিশন ২০২১ ইন্টার্নশিপ’। এর আওতায় প্রথমবারের মতো বিদ্যুত্, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়সহ আরও বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করার সুযোগ লাভ করে শিক্ষার্থীরা। এছাড়া তারা ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করার সুযোগ লাভ করে বিশ্বের সর্ববৃহত্ সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটে। সরকারি-বেসরকারি এই সকল দপ্তর ও তরুণদের মধ্যে এক সেতুবন্ধন তৈরির ক্ষেত্র হিসেবে কাজ করছে ইয়াং বাংলা।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো কর্তৃক পরিচালিত একটি জরিপে ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করা মোসাম্মত্ কামরুন্নাহার বলেন, ‘এই কাজের অভিজ্ঞতা আমাকে যেকোনো পরিবেশে মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের সক্ষমতা তৈরিতে অনেক ধাপ এগিয়ে দিয়েছে। পাশাপাশি গ্রাম বাংলার মানুষের জীবনধারণ ও সামাজিক প্রেক্ষাপট সম্পর্কে একটি মৌলিক ধারণা প্রদান করেছে।

ইয়াং বাংলার ভিশন ২০২১ ইন্টার্নশিপ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের তরুণ সমাজ পেয়েছে কর্মক্ষেত্রের অভিজ্ঞতা অর্জনের সম্পূর্ণ নতুন এক প্লাটফর্ম। ‘ভিশন ২০২১’-র অধীনে তরুণের সুযোগ পাচ্ছে সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্ন করার সুযোগ। এর মাধ্যমে সরকারি বিভিন্ন কার্যালয়ের সঙ্গে পরিচয় হচ্ছে তাদের। সম্পর্ক তৈরি হচ্ছে কর্মজীবী ও তরুণদের মধ্যে। সেই সঙ্গে এই কার্যক্রমে যোগ দিয়ে নিজেদের সময় নষ্ট না করে কর্মক্ষেত্রে যোগ দেওয়ার আগে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে সক্ষম হচ্ছে দেশের তরুণ সমাজ। এখন পর্যন্ত ৭৭৮ জন তরুণ-তরুণীকে সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্ন করার সুযোগ করে দিয়েছে ইয়াং বাংলা। এই সংখ্যা ভবিষ্যতে জ্যামিতিক হারে বাড়ানোর পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হচ্ছে।

এই প্রকল্পের আওতায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদেরকে ইন্টার্নশিপের সুযোগ করে দেয় বিশ্বসেরা সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। প্রকল্পের আওতায় এখন পর্যন্ত ৫০ জন মাইক্রোসফট ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ার সুযোগ লাভ করেছে। পাশাপাশি সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ারিং ট্রেনিংয়ের সুযোগ লাভ করেছে ৪০০ জন ও ৩৫০ জন ইন্টার্নশিপের সুযোগ পায়।

সূত্র: ইত্তেফাকfavicon59-4

Leave a Reply