ইয়াং স্কলার সামিট ১৫ জুলাই

ইয়াং স্কলার সামিট ১৫ জুলাই

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

অপার সম্ভাবনাময় তরুণ স্কলারদের নিয়ে আগামী ১৫ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ইয়াং স্কলার সামিট-২০১৭’ আয়োজন করতে যাচ্ছে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপমেন্ট (সেরিড)।

ওইদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী অডিটরিয়ামে এ সামিট অনুষ্ঠিত হবে।

ইয়াং স্কলার সামিট-এর মূল উদ্দেশ্য তরুণ স্কলারদের সাথে একাডেমিশিয়ান, গবেষক ও নীতি নির্ধারকমণ্ডলীর উন্মুক্ত জ্ঞান তাত্ত্বিক সংলাপের মাধ্যমে অভিজ্ঞতার সমন্বয় ঘটানো। যেখানে গবেষণার ভিত্তিতে সমাজ রুপান্তরের অন্তরায় কাটিয়ে টেকসই উন্নয়ন ও আগামীর বাংলাদেশের দিক নির্দেশনা নির্ধারিত হবে।

তরুণ সমাজই আমাদের প্রাণ-প্রাচুর্যে পূর্ণ সম্পদ যারা বাংলাদেশকে উন্নয়নের শীর্ষে নিয়ে যাচ্ছে। সমাজে বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সমস্যা বিদ্যমান এবং আমরা সহজেই তা এড়িয়ে চলতে চাই। যা কোন সমস্যার সমাধান নয় বরং টেকসই সমাজ রুপান্তরের অন্তরায় হিসেবে কাজ করে। দরকার তারুণ্য শক্তির সক্রিয় সম্পৃক্ততায় ও সংলাপের মাধ্যমে উত্তরণের পথ খোঁজা। তাই ইয়াং স্কলার সামিট-এ সেরিডের প্রত্যয় সামাজিক ও রাজনৈতিক বিষয়গুলোতে তরুণদের তার্কিক সংলাপের মাধ্যমে সম্পৃক্ত করা। তাদের মতামতকে তুলে ধরা।

এতে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিদের সাথে অনুপ্রেরণামূলক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের এক অনন্য সুযোগ করে দেওয়া। কর্মজীবন নিয়ে স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি সুনাগরিক হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলতে উদ্বুদ্ধ করাও এর উদ্দেশ্য।

সামিটটিতে চারটি ডিস্কার্সিভ প্যানেল থাকবে। এগুলো হলো- ১) অন ক্রিটিক অফ রিসার্চ, ২) ক্রিয়েটিভিটি ইন এডুকেশন, ৩) পলিটিক্স অফ পয়েটিক্স ও ৪) হেলথ ইনিকুয়ালিটি।

অংশগ্রহণকারীরা পছন্দ অনুযায়ী চারটি ডিস্কার্সিভ প্যানেলের একটিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। যেখানে অংশগ্রহণকারীরাই মূল আলোচক এবং তাদের যুক্তি, তর্ক ও নিজস্ব মতামত তুলে ধরবেন। প্রতিটি প্যানেলে ইয়াং, সিনিয়র একাডেমিশিয়ান ও নন-একাডেমিশিয়ান উপস্থিত থাকবেন ও বিশ্লেষণমূলক সংলাপ করবেন। প্রতিটি প্যানেল থেকে তিনজন করে মোট ১২ জন অংশগ্রহণকারীকে ‘সেরাআলোচক পুরষ্কার’ দেওয়া হবে।

সামিট-এ ২০১৬ সালের সম্পন্ন প্রকাশিত বা অপ্রকাশিত সামাজিক গবেষণার জন্য দুইজন গবেষককে দুইটি ক্যাটাগরিতে ‘সেরিডসোশ্যাল রিসার্চ এক্সিলেন্স এওয়ার্ড-২০১৭’ দেওয়া হবে। একজন তরুণ গবেষক (বয়স ৩০ বছরের নিচে) ও একজন সিনিয়র গবেষক (বয়স ৩০ বছর+)। জুরি বোর্ডের মাধ্যমে সোশ্যাল রিসার্চ এক্সিলেন্স এওয়ার্ড নির্ধারণ করা হবে।

সেরিড সোশ্যাল রিসার্চ এক্সিলেন্স এওয়ার্ড পেতে আগামী ১০ জুলাই-২০১৭-এর মধ্যে আপনার গবেষণা কর্মটি yss@sayrid.org অথবা youngscholarssummit@gmail.com মেইলে পাঠাতে হবে।

বাংলাদেশের যেকোন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের সকল শিক্ষার্থী, গবেষক, একাডেমিশিয়ান, গবেষণা ও নীতি নির্ধারণের সাথে জড়িত পেশাজীবীরা সামিটটিতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন ।

নিবন্ধন পদ্ধতি
১ম ধাপ-নিচের লিংকে গিয়ে নিবন্ধন ফরম পূরণ করতে হবে। https://goo.gl/forms/03Jf2Mr6WhyhnEyh1

২য় ধাপ- নিবন্ধন করতে ০১৭২৫-২৮৩৭২৭ এই নম্বরে ১০০০ টাকা (পেশাজীবীদের জন্য) ও ৫০০ টাকা (শিক্ষার্থীদের জন্য) বিকাশ করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় তথ্য ও বিকাশ ট্রানজেকশন আইডি উল্লেখ করে অনলাইনেই জমা দিতে হবে।  নিবন্ধন সংক্রান্ত সকল তথ্য পাওয়ার সাথে সাথেই আপনাকে আসন নিশ্চিতকরণের ফিরতি এসএমএস পাঠানো হবে।

উপরুক্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আপনি আপনার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে পারেন। নিবন্ধনের শেষ তারিখ ১০ জুলাই (আসন সীমিত, আগে আসলে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে)।

ইয়াং স্কলার সামিটটির সহযোগিতায় আছে সমকাল ও দি স্ট্রাকচালার ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড (এসইএল)।

যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ: ০১৭২৫-২৮৩৭২৭, হেলাল উদ্দিন, সহকারি পরিচালক (রিসার্চ এন্ড ইনোভেশন ডিভিশন), সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপমেন্ট (সেরিড)।

সূত্র: সমকালfavicon59-4

Leave a Reply