ড্যাফোডিলে বিকাশের ‘স্পট রিক্রুটমেন্ট’

ড্যাফোডিলে বিকাশের ‘স্পট রিক্রুটমেন্ট’

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও দেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফাইন্যান্সিং প্রতিষ্ঠান বিকাশ লিমিটেড এবং ‘স্কিল ডট জবস্’-এর যৌথ আয়োজনে আজ বৃহম্পতিবার ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে ‘স্পট রিক্রুটমেন্ট’ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব-উল-হক মজুমদার। কর্মসূচীতে রিসোর্স পার্সন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিকাশ লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ নাসির। এছাড়াও সেমিনারে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট সেন্টারের পরিচালক আবু তাহের খানসহ বিকাশ লিমিটেডের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

বিকাশ লিমিটেডে বিভিন্ন পদে কর্মী নিয়োগের উদ্দেশ্যে এ কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। এতে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা জীবনবৃত্তান্ত জমা দেন এবং সেমিনার শেষে এক ঘণ্টার একটি বহুনির্বাচনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরকে পরবর্তীতে মৌখিক পরীক্ষার জন্য আহ্বান জানাবে বিকাশ লিমিটেড এবং মৌখিক পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরকে বিভিন্ন পদে নিযোগ প্রদান করবে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব-উল-হক মজুমদার বলেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদেরকে শুধু সার্টিফিকেট প্রদান করেনা বরং তাদেরকে দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তোলে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রম এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে একজন শিক্ষার্থীকে স্নাতক সম্পন্ন করার পর একদিনও বেকার থাকতে না হয়।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমাদের আইকিউ অনেক ভালো, তোমরা অনেক মেধাবী কিন্তু তোমাদের জ্ঞানের গভীরতা কম। জ্ঞানের গভীরতা বাড়ানোর জন্য প্রচুর বই পড়তে হবে, প্রযুক্তির সঙ্গে থাকতে হবে এবং নিয়মিত সংবাদপত্র পড়তে হবে। আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞানের সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে হবে। তা না হলে প্রতিযোগিতামূলক কর্মক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়তে হবে বলে মন্তব্য করেন অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব-উল-হক মজুমদার।

অনুষ্ঠানে বিকাশ লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ নাসির বলেন, বিকাশ শুধু বাংলাদেশে নয়, বিশ্বের মধ্যে অন্যতম বৃহৎ মোবাইল ফাইন্যান্সিং প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন বিকাশের মাধ্যমে পাঁচ মিলিয়ন আর্থিক লেনদেন সম্পন্ন হয়। বাংলাদেশের সামগ্রিক আর্থিক লেনদেনের ১৩ শতাংশ বিকাশের মাধ্যমে সম্পন্ন হচ্ছে। বলার অপেক্ষা রাখে না, এই বিরাট কর্মযজ্ঞ নিঁখুতভাবে সম্পন্ন করতে প্রচুর দক্ষ কর্মীর প্রয়োজন। বিকাশ তাই প্রতিনিয়ত কর্মী নিয়োগ করছে। সৈয়দ নাসির বলেন, মেধাবী মানবসম্পদ নিয়োগের উদ্দেশ্যে তারা ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে এই স্পট রিক্রুটমেন্ট কর্মসূচির আয়োজন করেছেন।

সৈয়দ নাসির শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিকাশ একটি নতুন জব মার্কেট। এই মার্কেট দ্রুত বিকশিত হচ্ছে। মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধানে বিকাশ বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ মার্কেটে পরিণত হয়েছে। সুতরাং এই সেক্টরে ক্যারিয়ার সম্ভবনা প্রচুর। এজন্য প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশোনার পাশাপাশি নিজেকে চাকরির জন্য প্রস্তুত করতে হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি।

Leave a Reply