দক্ষ জনবল সৃষ্টি ও আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা

দক্ষ জনবল সৃষ্টি ও আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা

  • শাহজাহান আলী মূসা

আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা দক্ষ জনবল সৃষ্টিতে কতটা ভূমিকা রাখতে পারছে? যদিও প্রতি বছর লাখ লাখ তরুণ তরুণী গ্রাজুয়েশন শেষ করে বের হচ্ছে। এঁরা সমাজকে, দেশকে এমনকি নিজেকে কী দিতে পারবে এবং কোন কোন ক্ষেত্রে এই শিক্ষা কাজে লাগাতে পারবে—এর কোনো সদুত্তর আসলে কারো কাছেই নেই। এর সঠিক উত্তর নাই বলেই আমাদের দেশে ক্রমশ বেকারত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বাংলাদেশে যারা বেকার, তারা কি আসলেই বেকার? নাকি আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা তাকে বেকার করে রেখেছে? আমাদের শিক্ষাব্যবস্থাই বেকারত্বের মূল কারণ বলে মনে করি। তবে সকল শিক্ষাই বেকারত্ব সৃষ্টি করছে তা কিন্তু নয়। কিন্তু আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় সরকার কতটুকু অংশগ্রহণ করতে পারছে? এবং যুগের সঙ্গে তাল মেলাতে পারছে?

সম্প্রতি বিবিসি তার এক প্রতিবেদনে বলেছে, বাংলাদেশের চাকরির বাজারে বিদেশিদের দাপট বাড়ছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়—প্রতি বছর কোটি কোটি ডলার হারাচ্ছে বাংলাদেশ দক্ষ জনশক্তির অভাবে। সেখানে প্রতি বছর ভারতই ৫০০ কোটি ডলার নিয়ে নিচ্ছে আমাদের শ্রমবাজার থেকে। এছাড়াও রয়েছে শ্রীলংকা, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, চীন, কোরিয়া প্রভৃতি দেশ। যেখানে বাংলাদেশেই দিন দিন বেকার সংখ্যা বাড়ছে, আবার সেখানে আমাদের শ্রমবাজারে বিদেশিরা ঢুকছে। কারণ আমাদের ছেলেমেয়েদের সেই দক্ষতা নেই।

বাংলাদেশ এমপ্লয়ার্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট ব্যবসায়ী নেতা ফজলুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানি, গামেন্টর্স, ঔষধ কোম্পানি কিংবা অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে বহু বিদেশি নাগরিক। দেশে মিড লেভেল ও টপ লেভেলের প্রফেশনালদের বড় ধরনের ঘাটতি রয়েছে। প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থায় শিক্ষিত হয়ে আসা কর্মীরা চাহিদা  মেটাতে পারছে না। ফলে বাধ্য হয়ে বিদেশ থেকে কর্মী আমদানি করতে হচ্ছে।’ বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সিপিডি বলছে, দেশের ২৪ শতাংশ তৈরি পোশাক কারখানাতে বিদেশি  শ্রমিক কাজ করছে। দক্ষতার ঘাটতির কারণেই বিদেশি শ্রমিকদের হাতে চলে যাচ্ছে দেশের অর্থ। এক প্রশ্নের জবাবে ব্যবসায়ী ফজলুল হক বলেন, পেশাগত দক্ষতার অভাবের পাশাপাশি ভাষাগত দক্ষতারও অভাব রয়েছে। বিশেষ করে ইংরেজি ভাষার দক্ষতা এবং পেশাগত কৌশলের ঘাটতি প্রকট।

অর্থাত্ দক্ষ জনবল সৃষ্টিতে অবশ্যই কারিগরি শিক্ষা নিতে হবে। একদিকে বেকার, শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বাড়ছে, অন্যদিকে আমাদের কর্মক্ষেত্রগুলো দখল করছে বিদেশিরা। এটা দুঃখজনক। নিয়োগদাতারা প্রফেশনাল লোক খুঁজছেন, তাঁরা দক্ষ লোক না পেয়ে বিদেশি নাগরিককে কাজ দিয়ে দিচ্ছেন। তাতে আমাদের দেশের অর্থ চলে যাচ্ছে  দেশের বাইরে। যদিও এদেশের অনেক শ্রমিক বিদেশে কাজ করছে। শ্রমিকদের দক্ষ করে গড়ে তুলে বিদেশ পাঠাতে পারলে দেশের ও বিশ্বের শ্রমবাজারে বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত হবে।

সূত্র: ইত্তেফাক

Leave a Reply