সামাজিক ব্যবসা ডিজাইন ল্যাব অনুষ্ঠিত

সামাজিক ব্যবসা ডিজাইন ল্যাব অনুষ্ঠিত

  • উদ্যোক্তা ডেস্ক

ইউনূস সেন্টার আয়োজিত ৪৩৭তম সামাজিক ব্যবসা ডিজাইন ল্যাব সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) গ্রামীণ ব্যাংক অডিটোরিয়াম কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

আফগানিস্তান, ব্রাজিল, অষ্ট্রিয়া ও ইতালীসহ বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ১৪০ জন এই ল্যাবে অংশগ্রহণ করেন। নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস ডিজাইন ল্যাবে সভাপতিত্ব করেন।

ডিজাইন ল্যাবে ৬টি নতুন ‘নবীন উদ্যোক্তা’ ব্যবসা পরিকল্পনা উপস্থাপিত হয়। উপস্থাপিত ব্যবসাগুলোর উদ্যোক্তাদের সকলেই গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণগ্রহীতা পরিবারের সন্তান। উপস্থাপিত ব্যবসাগুলোর মধ্যে ছিল কৃষি লেবু চাষ প্রকল্প, খুচরা রেডিমেড কাপড়ের স্টোর, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবসা, কৃষি-যন্ত্র নির্মাণ যেমন ধান মাড়াই যন্ত্র ইত্যাদি।

দুই সন্তানের জননী মিস রাবেয়া বেগম (সীমা) তার ভিলেজ মাল্টিমিডিয়া সেন্টার সম্প্রসারণের জন্য তার ব্যবসায়িক পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন। তার নিজ এলাকার নারীদের কাছে উদ্যোক্তা হিসেবে সুপরিচিত একজন রোল মডেল রাবেয়া বেগম একজন তরুণ আইসিটি ব্যবসায়ী হিসেবে নিজেকে ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন।

নবীন উদ্যোক্তাদের একজন মো. তারেক কৃষিকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন। লেবু চাষের আধুনিক পদ্ধতিগুলো সম্পর্কে তিনি অবহিত এবং তিনি তার স্থাপিত একটি ছোট আকারের লেবু খামারে বিভিন্ন জাতের লেবু চাষ করছেন। তিনি তার খামার ‘তারেক লেবু বাগান’-কে সামাজিক ব্যবসা তহবিল থেকে গৃহীত মূলধনী বিনিয়োগের দ্বারা সম্প্রসারিত করতে চান।

নবীন উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক পরিকল্পনাগুলো বিশদ উপস্থাপনা করা হয় এবং এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এরপর প্রকল্পগুলো অধিকতর পর্যালোচনার জন্য দলীয় পর্যায়ে উপস্থাপনা করা হয়। উপস্থাপিত প্রতিটি প্রকল্পই স্ব-স্ব দল কর্তৃক অর্থায়নের জন্য অনুমোদিত হয়। গ্রামীণের সামাজিক ব্যবসা তহবিলের সঙ্গে যৌথ-মূলধনী ব্যবসা হিসেবে পরিচালিত এই সামাজিক ব্যবসা প্রকল্পগুলো www.sociabusinesspedia.com –এ মনিটর করা হবে।

জানুয়ারী ২০১৩-এ ডিজাইন ল্যাব শুরু হবার গত ৪৩৬তম ল্যাব পর্যন্ত ১০,৮৯৯টির বেশি প্রকল্প ডিজাইন ল্যাবে উপস্থাপন করা হয়েছে যাদের মধ্যে ১০,৮৭৪টি প্রকল্প মূলধনী বিনিয়োগের জন্য অনুমোদিত হয়েছে। এসকল নবীন উদ্যোক্তা প্রকল্পে অনুমোদিত ইক্যুইটি ফান্ডের পরিমাণ প্রকল্প প্রতি ১ থেকে ৫ লাখ টাকা।

এদিকে সোমবার ডিজাইন ল্যাবে ইউনূস সেন্টারের সঙ্গে তাইওয়ানের চ্যাং জুং ক্রিশ্চিয়ান ইউনিভার্সিটির মধ্যে স্কাইপি কনফারেন্সের মাধ্যমে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে সামাজিক ব্যবসার ধারণা প্রসারিত করার উদ্দেশ্যে একটি ‘উনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র’ প্রতিষ্ঠা করতে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। চ্যাং জুং ক্রিশ্চিয়ান ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট জনাব ইয়ুং-লুং লী এবং নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন।

ভিডির কনফারেন্সের সময়ে তাইওয়ানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তাইওয়ান সামাজিক ব্যবসা তহবিলের পক্ষে ওয়াং জুনো ও ফিলিপ্পা সাই। নব প্রতিষ্ঠিত এই কেন্দ্রটিসহ বিশ্বজুড়ে এখন ইউনূস সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্রের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩২-এ।favicon59-4

Leave a Reply