সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাবের যাত্রা শুরু

সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাবের যাত্রা শুরু

  • ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সোস্যাল বিজনেস সেন্টারের অধীনে চালু হলো সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাব (এসবিডিএল)। আজ সোমবার রাজধানীর শুক্রাবাদে ড্যাফোডিল বিজনেস ইনকিউবেটর মিলনায়তনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এ ডিজাইন ল্যাব যাত্রা শুরু করে।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খানের সভাপতিত্বে সকাল ১১টায় অনুষ্ঠান শুরু হয। অনুষ্ঠানে মো. সবুর খান বলেন, ‘বিশ্বের ৩৪টি দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ড. ইউনূস উদ্ভাবিত সোস্যাল বিজনেস সেন্টার পরিচালিত হয়, তারমধ্যে বাংলাদেশে শুধু ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এটি চালু রয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ১১ হাজার ছোট বড় উদ্যোক্তা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। আমরা আনন্দিত, সেস্যাল বিজনেস সেন্টারের অধীনে আরও একটি প্রতিষ্ঠান যাত্রা শুরু করল যার নাম সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাব।’

অনুষ্ঠানে সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাব সম্পর্কে ধারনাপত্র উপস্থাপন করেন সোস্যাল বিজনেস সেন্টারের প্রধান নির্বাহী ও সহযোগী অধ্যাপক মাসুদ ইবনে রহমান। তিনি বলেন, সোস্যাল বিজনেস সেন্টার উদ্যোক্তা এবং বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সেতুবন্ধ হিসেবে কাজ করছে।

এরপর অনুষ্ঠানে তিনটি ব্যবসায়িক পরিকল্পনা উপস্থাপন করা হয়। এর একটি উপস্থাপন করেন সিলেটের উদ্যোক্তা আব্দুল বাসিত, অপরটি ‍ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্যোক্তা মনির হোসেন এবং সবশেষ প্রকল্প উপস্থাপন করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের শিক্ষার্থী সামসুন নাহার লিপি ও রাহনুমা ইসলাম মিম। উপস্থাপিত প্রকল্প তিনটির মধ্য থেকে মনির হোসেনের ‘দয়াল গার্মেন্টস’ এবং সিএসই বিভাগের শিক্ষার্থীদের ‘উদ্যোক্তা মনিটরিং সিস্টেম অ্যাপ’- প্রকল্প  দুইটি সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। এই দুটি প্রকল্পে সোস্যাল বিজনেস ডিজাইন ল্যাব আর্থিকভাবে সহায়তা করবে।

সোস্যাল বিজনেস স্টুডেন্ট ফোরামের সহযোগিতায় আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার হামিদুল হক খান, স্যার ইউলিয়াম বেভারেজ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর মেজর জেনারেল (অব.) জীবন কানাই দাশ, বাংলাদেশ সরকারের শুল্ক বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী কমিশনার নাসির উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রামের অ্যাঞ্জেল কিন্ডারগার্টেন স্কুলের সাবেক অধ্যক্ষ রূপরেখা বানু, এজিং সাপোর্ট ফোরাম বাংলাদেশের সভাপতি হাসান আলি,  ইউনূস সেন্টারের প্রতিনিধি এ.কে.এম যায়েদ উদ্দিন, পেডিকেয়ার বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক কাজী কাজী মেজবাহ উর রহমান  প্রমূখ।favicon59-4

Leave a Reply