অমিয়া আলমের ক্লাসিক ইভেন্টস

অমিয়া আলমের ক্লাসিক ইভেন্টস

  • উদ্যোক্তা ডেস্ক

অমিয়া আলম একজন স্থপতি। ২০১৪ সালে এআইইউবি থেকে স্থাপত্যে পড়াশোনা সম্পন্ন করেন তিনি। ছোটবেলা থেকে আগ্রহ ঘর সাজানো আর নানারকম আর্টের প্রতি। সেই শখের বশেই গড়েছেন স্বপ্ন, শখ আর শৌখিনতার ছোট্ট ভুবন ক্লাসিক ইভেন্টস। স্থাপত্যের ফার্মের ৯টা-৫টা অফিসের চাইতে নিজের উদ্যোগ কিছু করাটাই তাকে টানত বেশি। সেই টান থেকেই হয়ে উঠেছেন উদ্যোক্তা, গড়ে তুলেছেন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের প্রতিষ্ঠান ক্লাসিক ইভেন্টস। ২০১৬ সালে ক্লাসিক ইভেন্টেসের যাত্রা শুরু। জন্মদিন, বিয়ের অনুষ্ঠান, গায়ে হলুদ ও বিভিন্ন অফিসের নানা অনুষ্ঠানে কাজ করেন তারা। স্থাপত্যে পড়ায় গ্রাফিক্স ও বিভিন্ন রকমের উপকরণ নিয়ে কাজ করার ধারণা ও অভিজ্ঞতা অমিয়ার ছিলই। এরসঙ্গে শিল্পবোধের সমন্বয় ঘটিয়ে ভালোলাগা থেকেই কাজগুলো করছেন।

আগে বেশিরভাগ সময়ে অনুষ্ঠানগুলো সাধারণত ঘরোয়া পরিবেশে পালন করা হতো, কিন্তু এখন মানুষের চিন্তাধারা ও রুচিবোধে অনেক পরিবর্তন এসেছে। এখন প্রায় সব অনুষ্ঠানই থিমভিত্তিক এবং যে যার সাধ্য অনুযায়ী জাঁকজমকপূর্ণভাবে আয়োজন করার চেষ্টা করে।

অমিয়ার ক্লাসিক ইভেন্টস অনুষ্ঠান সাজানো ও পরিকল্পনার দায়িত্ব নেয়। একটা অনুষ্ঠান ভালো হলে তা দেখে অন্যরাও আগ্রহী হন, কাজ করাতে চান। এভাবে নতুন নতুন কাজ আসে। মাত্র একবছরের মধ্যে বেশ ভালো সাড়া পেয়েছেন তারা।

তবে অমিয়ার এই প্রতিষ্ঠানের শুরুটা সহজ ছিল না। ‘স্থাপত্য নিয়ে পড়ে কেন এই পেশায়?’ কমবেশি প্রায় সবার কাছ থেকেই তাকে এই প্রশ্ন শুনতে হতো। কিন্তু অমিয়া সবসময় বিশ্বাস করে এসেছেন, কোনো কাজই ছোট না, বরং আগ্রহটাই আসল। নিজের আগ্রহ আর পরিবারের সবার উত্সাহে তিনি এগিয়ে যাচ্ছেন। ‘আমাদের কাজ দেখে অন্যরা যখন প্রশংসা করেন, তখন নিজেকে সার্থক মনে হয়,’ বলেন অমিয়া। তবে এখনো তেমন প্রচার-প্রচারণা করছেন না। ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে কাজ করার ইচ্ছা আছে তার। মানুষের শুভকামনা অর্জন করতে পারাটাই তার কাছে অনেক বড় পাওয়া। ভবিষ্যতে তিনি সফল নারী উদ্যোক্তা হতে চান। এই যাত্রা সহজ নয়, এরজন্য তাকে অনেক পরিশ্রম ও কষ্ট করতে হবে বলে মনে করেন। তবু নিজের যতটুকু মেধা আর শ্রমশক্তি আছে, তা দিয়ে চেষ্টা করে যাবেন। অমিয়ার ভাষায়, ‘আমি অনুষ্ঠান সাজাই না, আমি স্বপ্ন সাজাই।’

সূত্র: ইত্তেফাকfavicon59-4

Leave a Reply