ভূমিকম্পে আফগানিস্তান-পাকিস্তানে নিহত ২৮০

ভূমিকম্পে আফগানিস্তান-পাকিস্তানে নিহত ২৮০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গতকালের ভূমিকম্পে আফগানস্তান ও পাকিস্তানে অন্তত ২৮০ জন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে হুড়োহুড়ির সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১২ আফগান স্কুলছাত্রী রয়েছে।

মার্কিন ভূতত্ত্ব জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩টা ৯ মিনিটে সংঘটিত প্রায় এক মিনিটের এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে ২১৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার গভীরে। এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল যেখানে, সেখান থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে ২০০৫ সালে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল, যাতে ৭৫ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছিল।

ভূমিকম্পে আফগানিস্তানে ৬৩ জন, পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশ ও কেন্দ্রশাসিত উপজাতি অঞ্চলে ১২০ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে চারজন ও পাঞ্জাবে পাঁচজন নিহত হয়েছে।

ভূমিকম্প আতঙ্কে হুড়োহুড়ির সময় পদদলিত হয়ে নিহত আফগান স্কুলছাত্রীদের জুতা। ছবি: বিবিসি
ভূমিকম্প আতঙ্কে হুড়োহুড়ির সময় পদদলিত হয়ে নিহত আফগান স্কুলছাত্রীদের জুতা। ছবি: বিবিসি

কর্মকর্তাদের বরাতে পাকিস্তানের ডন পত্রিকা লিখেছে, প্রান্তিক অঞ্চলে যোগাযোগব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় মৃত্যুর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিধ্বস্ত অঞ্চলে সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে দেশটির সরকার।

ভারতের দিল্লি, কাশ্মীর, রাজস্থান, হিমাচল, উত্তরাখন্ড, হরিয়ানা ও পাঞ্জাবেও ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। কাশ্মীর থেকে পুলিশের এক শীর্ষকর্তা জানান, ‘কিছু সেতু ও ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। ধসে পড়ার আশঙ্কায় শ্রীনগর ফ্লাইওভারে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।’ ভূমিকম্পের সময় দিল্লির মেট্রো ট্রেন সার্ভিস বন্ধ হয়ে যায়।

ভূমিকম্পে হতাহতের ঘটনায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ শোক প্রকাশ করেছেন। favicon

Leave a Reply