আবার সুযোগ পেলে যে ৩টি বিষয় পড়তাম : বিল গেটস

আবার সুযোগ পেলে যে ৩টি বিষয় পড়তাম : বিল গেটস

  • লিডারশিপ ডেস্ক

২০১৭ সালের স্নাতকদের উদ্দেশে সম্প্রতি একটি নিবন্ধ লিখেছেন মাইক্রোসফটের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। গেটসনোটস-এ প্রকাশিত নিবন্ধটির খানিকটা অংশ প্রমিনেন্টের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।


আমার সৌভাগ্য, প্রযুক্তি ক্ষেত্রে একটা দারুণ বিপ্লব যখন শুরু হলো, আমি তখন একেবারেই তরুণ। আমি আর পল অ্যালেন সে সময় কিছুটা অবদান রাখার সুযোগ পেয়েছি (আমি যে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করতে পারিনি, তার পেছনে এটা একটা কারণ বটে। আমরা ভীত ছিলাম, না জানি আমাদের অংশগ্রহণ ছাড়াই বিপ্লবটা সম্পন্ন হয়ে যায়!) আজ যদি আবার গোড়া থেকে শুরু করতে পারতাম, সেদিনের মতো সুযোগের খোঁজে থাকতাম, তাহলে আমি তিনটি ক্ষেত্র বিবেচনা করতাম।

প্রথমটা হলো কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। মানুষের জীবন যেন আরও সহজ, আরও সৃজনশীল হয়ে ওঠে, সে জন্য সব ক্ষেত্রে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার শুরু হয়েছে। দ্বিতীয়টা হলো শক্তি। কেননা দারিদ্র্য ও জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়তে দূষণহীন, সাশ্রয়ী ও নির্ভরযোগ্য শক্তি সামনের দিনগুলোতে বড় ভূমিকা রাখবে। আর তৃতীয়টা হলো জীববিজ্ঞান। মানুষের দীর্ঘায়ু ও সুস্থ জীবন নিশ্চিত করার জন্য এই ক্ষেত্রটা খুবই সম্ভাবনাময়।

তুমি যে ক্যারিয়ারই বেছে নাও না কেন, কিছু কথা সব সময় ধ্রুব সত্য। আহা, যখন স্কুল ছেড়েছিলাম, তখন যদি এই সত্যগুলো আমি জানতাম! যেমন মেধার কথাই ধরো। মেধাকে আমরা যতটা গুরুত্বপূর্ণ ভাবি, ব্যাপারটা কিন্তু ততটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। মানুষের মেধার অনেক রকম ধরন আছে। মাইক্রোসফটের শুরুর দিনগুলোতে আমি ভাবতাম, ভালো কোড লিখতে জানলেই বুঝি কেউ ভালো ব্যবস্থাপক কিংবা দলনেতা হতে পারে। আমি ধরে নিতাম, অন্য যেকোনো কাজ নিশ্চয়ই সে ভালো পারবে। আমি ভুল ছিলাম। দিনে দিনে মানুষের মেধার অন্য ধরনগুলোও চিনতে শিখেছি। যত দ্রুত তুমি এটা শিখবে, তত দ্রুত জীবনে সফলতা পাবে।favicon59-4

Leave a Reply