১৬ বছর বয়সেই ‘সিইও’ !

১৬ বছর বয়সেই ‘সিইও’ !

  • লিডারশিপ ডেস্ক

১৬ বছর বয়সী বেন পেসটারন্যাকের বক্তব্য খুব সোজাসাপ্টা—‘আমি আমার প্রজন্মের মার্ক জাকারবার্গ হতে চাই!’ বলেই সে ক্ষান্ত হয়নি। লক্ষ অর্জনে বেশ খানিকটা এগিয়েও গেছে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন, ফ্লগ-এর এই প্রধান নির্বাহী। ফ্লগ হলো একটি ব্যতিক্রমী অনলাইন কেনাবেচার অ্যাপ। অনেকে ফ্লগকে বলেন অন্য দুই জনপ্রিয় অ্যাপ টিন্ডার ও ই-বের মিশেল।

তার বয়সী ছেলেমেয়েরা যখন স্কুলে ক্লাস করছে, বেন তখন অফিসের জরুরি মিটিংয়ে ব্যস্ত! হ্যাঁ, স্কুল ছেড়ে, নিজের দেশ অস্ট্রেলিয়া ছেড়ে বেন পাড়ি জমিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। এত কম বয়সেই একটি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী হয়ে সে রীতিমতো তারকা বনে গেছে।

মাত্র ১১ বছর বয়সে বেন ইউটিউব ভিডিও বানাতে শুরু করে। ১৫ বছর বয়সে এক বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে সে তৈরি করেছিল একটি মোবাইল গেম—ইমপসিবল রাশ। গেমটি অস্ট্রেলিয়ার বাজারে ১ নম্বরে ও যুক্তরাষ্ট্রে ৪ নম্বরে ছিল। পরে ‘ফ্লগ’-এর ভাবনা যখন মাথায় আসে, বেন বুঝতে পারে, এই অ্যাপই হতে পারে তাঁর জীবনের ‘টার্নিং পয়েন্ট’। পড়ালেখা ছেড়ে পুরোদমে কাজে মন দেয় সে। বেনের স্বপ্ন অনেকটাই পূরণ হয়েছে। ২০১৬ সালের সবচেয়ে প্রভাবশালী ৩০ জন ‘টিনএজারের’ একটি তালিকা তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্রের টাইম সাময়িকী। সেখানে নামীদামি খেলোয়াড়-অভিনয়শিল্পী-সংগীতশিল্পীদের সঙ্গে আছে তার নাম!

সূত্র: দ্য নিউইয়র্কারfavicon59-4

Leave a Reply