পড়াশোনা ফেলে টুইটার প্রতিষ্ঠা করেন ইভান

পড়াশোনা ফেলে টুইটার প্রতিষ্ঠা করেন ইভান

  • লিডারশিপ ডেস্ক

মাইক্রোব্লগিং পোর্টাল টুইটারের সহপ্রতিষ্ঠাতা ইভান উইলিয়ামস। স্কুলের পড়াশোনা শেষে সেই নব্বইয়ের দশকে ইভান যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার বেশ কিছু প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে কাজ শুরু করেন। ইন্টেল আর হিউলেট-প্যাকার্ডের মতো প্রতিষ্ঠানের জন্য তিনি কোডিং করতেন। টুকটাক চাকরির পাশাপাশি ইউনিভার্সিটি অব নেব্রাস্কা-লিংকনে পড়াশোনা শুরু করেন ইভান। দেড় বছরের মাথায় পড়াশোনাকে বিদায় জানিয়ে আবারও পুরোদস্তুর কাজের দুনিয়ায় পা রাখেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনায় তেমন আগ্রহ পাচ্ছিলেন না। বরং প্রযুক্তিসংক্রান্ত নিত্যনতুন ভাবনা তাঁকে পেয়ে বসেছিল।

বন্ধু মেগ হোরিহানের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পাইরা ল্যাব প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। এই ল্যাবের একটি সেবা ছিল ‘ব্লগার’, যা কি না বর্তমান সময়ের আলোচিত ‘ব্লগ’ শব্দের গোড়াপত্তন করে। ইভানই ‘ব্লগার’ শব্দটি চালু করেন। ২০০৩ সালে গুগল ব্লগার কিনে নেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়া শেষ না করেও ইভান ২০০৩ সালে এমআইটি টেকনোলজি রিভিউয়ের তালিকায় পৃথিবীর সেরা ১০০ উদ্ভাবকের একজন হিসেবে মনোনীত হন। ২০০৬ সালে অভিয়াস করপোরেশন প্রতিষ্ঠা করেন ইভান ও বিজ স্টোন। এই প্রতিষ্ঠানের একটি প্রকল্পই ছিল টুইটার, যা কিনা ২০০৭ সালে একটি স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। টুইটার তুমুল জনপ্রিয়তা পেলেও থেমে থাকেননি তিনি। ২০১২ সালে আরেকটি প্রকাশনা ‘ওয়েব মিডিয়াম’ প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিনিয়ত প্রযুক্তির দুনিয়ায় নতুন নতুন আবিষ্কার যোগ করে পৃথিবীকে চমকে দেওয়ার বাতিক আছে তাঁর!favicon59-4

Leave a Reply