ইলিশ কেনার ধুম পড়েছে

ইলিশ কেনার ধুম পড়েছে

  • নিউজ ডেস্ক

পহেলা বৈশাখ আসতে এখনও বেশ কয়েকদিন বাকি। এখন চলছে ইলিশ কেনার প্রস্তুতি। গতকাল শুক্রবার শেষ ছুটির দিনে বাজারে ছিল ক্রেতাদের ভিড়। ইলিশের চাহিদা বেশি থাকায় বাজার দামে ছিল বৈশাখী উত্তাপ। গতকাল বিক্রেতারা বড় আকারের প্রায় দুই কেজি ওজনের ইলিশ ৮ থেকে ৯ হাজার টাকা দাম হাঁকিয়েছেন। কিন্তু এসব ইলিশ সর্বোচ্চ ৬ হাজার টাকায় কেনাবেচা হতে দেখা গেছে। ছোট আকারের ইলিশও চড়া দামে বিক্রি হয়েছে। তবে বাজারে ইলিশের কমতি ছিল না।

গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন খুচরা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিটি ছোট ইলিশের দাম ১০০ থেকে ২০০ টাকা বেড়েছে। তবে বড় ইলিশ দ্বিগুণের বেশি দামে বিক্রি হয়েছে। প্রতিটি ছোট ইলিশ বিক্রি হয়েছে আড়াইশ’ থেকে ৩০০ টাকায়। ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা ও এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছে প্রায় ২ হাজার টাকায়।

খুচরা বাজারের পাশাপাশি রাজধানীর সুপার স্টোরগুলোতে শুরু হয়েছে ইলিশ মেলা। সুপার শপে তুলনামূলক কম দামে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। প্রতিটি ৩০০ থেকে ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ১৮৮ থেকে ৪৪৫ টাকা, ৭০০ থেকে ৭৫০ গ্রাম ৭৪৫ টাকা, প্রায় এক কেজি ওজনের ইলিশ ১ হাজার ৯৫ থেকে ১ হাজার ৪৫০ টাকা ও এক কেজির বেশি কিন্তু দেড় কেজির কম দেড় হাজার থেকে ১ হাজার ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে ইলিশ সংরক্ষণে ‘অভয়াশ্রম কর্মসূচি’। আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে। এ দুই মাস দেশের পাঁচটি অঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে অভয়াশ্রম এলাকায় কোনো ধরনের জাল ফেলা নিষিদ্ধ। ইলিশ মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ২০০৬ সাল থেকে এ কর্মসূচি চলছে। এ সময় মাছ শিকারে জেল-জরিমানার বিধান রয়েছে। এ কারণে এখন ইলিশ ধরা বন্ধ। ফলে বাজারে তাজা ইলিশ এখন আর আসছে না।

তাজা ইলিশ আসা বন্ধ থাকার পরও বাজারে পদ্মার তাজা ইলিশ বলে চড়া দাম হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা। ক্রেতাদের কাছ থেকে চড়া দাম নিতে নানা কৌশলে কথা বলছেন তারা।favicon59

Leave a Reply