জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে ‘ড্যাফোডিল ফ্যামিলি ডে-২০১৮’ উদযাপিত

জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে ‘ড্যাফোডিল ফ্যামিলি ডে-২০১৮’ উদযাপিত

  • সংবাদ ডেস্ক

নানা কর্মসূচি আর জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মধ্য দিয়ে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস আশুলিয়ায় গতকাল শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) ‘ড্যাফোডিল ফ্যামিলি ডে-২০১৮’ উদযাপিত হয়েছে। দিনব্যাপী এ আয়োজনে ড্যাফোডিল গ্রুপের ৩৫টি প্রতিষ্ঠানের প্রায় আড়াই হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন। আয়োজনের মধ্যে সবার অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে বাংলাদেশের মানচিত্রের আদলে ‘মানবমানচিত্র’ তৈরিকরণ ছিল উল্লেখযোগ্য। এছাড়া ক্রিকেট, ফুটবল, ডমিন্টনসহ বিভিন্ন ধরনের খেলা, কর্মকর্তা-কর্মচারীর সন্তানদের অংশগ্রহণে বিস্কুট দৌড়, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, বিভিন্ন রাইডে অংশগ্রহণ, সাংস্কৃতিক আয়োজন, সেরা কর্মীদের পুরস্কার বিতরণ ইত্যাদি ছিল উল্লেখযোগ্য। বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা মিলনায়তনে সেরা কর্মীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণসহ প্রায় দুই লক্ষ টাকার অর্থকুপন তুলে দেন ড্যাফোডিল ফ্যামিলির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ফ্যামিলির চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, স্থায়ী ক্যাম্পাসের ডিন প্রফেসর ড. মোস্তফা কামাল, ড্যাফোডিল ফ্যামিলির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইমরান হোসেন প্রমুখ। ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খানের এইউএপির ভাইস প্রেসিডেন্ট হওয়া, ডেইলিস্টার আইসিটি পার্সন অব দ্য ইয়ার পুরস্কার অর্জনসহ সারাবিশ্বে ড্যাফোডিলকে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ড. মো. সবুর খানকে অভিনন্দন জানিয়ে তাঁর হাতে একটি ফটোস্মারক তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ স্কিল ডেভলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের (বিএসডিআই) উপদেষ্টা কে এম হাসান রিপন।

অভিনন্দন স্মারক গ্রহণের পর ড. মো. সবুর খান বলেন, ড্যাফোডিল গ্রুপ শুধু একটি প্রতিষ্ঠানই নয়, এটি একটি পরিবারও বটে। এখানে কর্মীরা সবাই একটি পরিবারের সদস্যদের মতো কাজ করেন। কর্মীদের মধ্যে মিথস্ক্রিয়তা, আন্তুরিকতা ও হৃদ্যতা বাড়ানোর লক্ষ্যে এই ফ্যামিলি ডে’র আয়োজন করা হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই কর্মীদের হাত ধরেই ড্যাফোডিল গ্রুপ উত্তরোত্তর সাফল্যের শিখরে পৌঁছে যাবে।

বর্তমানে ড্যাফোডিল পরিবারের সদস্যগুলোর মধ্যে রয়েছে ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেড, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজ, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি, ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, কার্ডিও কেয়ার হাসপাতাল, বাংলাদেশ স্কীল ডেভেলপমেন্ট ইন্সটিটিউট, ড্যাফোডিল ইন্টরন্যাশনাল প্রফেশনাল ট্রেনিং ইন্সটিটিউট (দিপ্তি), স্কিল জবস, ড্যাফোডিল অনলাইন লিমিটেড, ড্যাফোডিল সফটওয়্যার লিমিটেড, ডলফিন কম্পিউটার্স লিমিটেড, নিউটেক ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, ড্যাফোডিল ওয়েব অ্যান্ড ই- কমার্স লিমিটেড ও মাই-ই কিডস।

Leave a Reply