সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ : অপেক্ষা বাংলাওয়াশের

সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ : অপেক্ষা বাংলাওয়াশের

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রথম ম্যাচের পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় পেল বাংলাদেশ। জয়ের জন্য ২৪২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৮৩ রানেই গুটিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে। ৫৮ রানের সহজ জয় দিয়ে ওয়ানডে সিরিজও জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। অর্জন করেছে টানা পাঁচটি ওয়ানডে সিরিজ জয়ের গৌরব।

জয়ের জন্য ২৪২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই ছিল জিম্বাবুয়ের। কিন্তু পঞ্চম ওভারে ওপেনার রিজিস চাকাবভাকে আউট করে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন আরাফাত সানি। ১৬ বল খেলে মাত্র এক রান করে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন তিনি। বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাফল্যটি এসেছে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার হাত ধরে। দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন চামু চিভাভাকে। ৯ বলে ১৪ রান করেন তিনি। অবশেষে উইকেট পেলেন কাটার খ্যাত মুস্তাফিজ।

তিনি দলীয় নবম ওভারে বাংলাদেশকে তৃতীয় সাফল্য এনে দেন। অফ কাটারে পরাস্ত হয়ে শর্ট মিডউইকেটে নাসির হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন শন উইলিয়ামস (১৪)। ২১তম ওভারে লিটন দাসের দারুণ থ্রোতে রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরান ২৬ রান করা ক্রেইগ আর্ভিনকে। পঞ্চম উইকেটে ৭৩ রানের জুটি গড়ে ক্রমশই বিপজ্জনক হয়ে উঠছিলেন অধিনায়ক এল্টন চিগুম্বুরা ও সিকান্দার রাজা। কিন্তু এবার জ্বলে উঠলেন আল আমিন। পরপর দুই ওভারে আউট করেন রাজা (৩৩) ও চিগুম্বুরাকে (৪৭)। ৪২তম ওভারে ম্যালকম ওয়ালারকে (৮) আউট করেন নাসির হোসেন। পরের ওভারে লুক জংউই ও তিনাশে পানিয়াঙ্গারাকে (১১) আউট করে বাংলাদেশের জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন মুস্তাফিজ। শেষ ব্যাটসম্যান গ্রেম ক্রিমারকে আউট করে জিম্বাবুয়ের ইনিংসের সমাপ্তি ঘটান নাসির।

দলে ফিরেই জ্বলে উঠলেন ইমরুল কায়েস। ছবি: ক্রিকইনফো
দলে ফিরেই জ্বলে উঠলেন ইমরুল কায়েস। ছবি: ক্রিকইনফো

এর আগে টস জিতে আগে ব্যাটিং করে বাংলাদেশ। তবে শুরুটা ভাল হয়নি মাশরাফিদের। দলীয় ৩২ রানেই আউট হন ওপেনার তামিম ইকবাল। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো বাংলাদেশ লড়াই করার মতো পঁজি পান ওপেনার ইমরুল কায়েস ও অলরাউন্ডার নাসির হোসেনের ব্যাটে।

ইমরুল কায়েস খেলেছেন সর্বোচ্চ ৭৬ রানের ইনিংস। ক্রেমারের তালুবন্দী হওয়ার আগে ৮৯ বলের দাপুটে ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছিলেন ৬ চার ও ৪ ছক্কায়। এ ছাড়া অন্য কোনো ব্যাটসম্যানই হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করতে পারেননি। তবে অলরাউন্ডার নাসির হোসেন খেলেছেন ৪১ রানের কার্যকর ইনিংস। ৫৩ বল মোকাবেলায় ৩ বাউন্ডারিতে এই রান করেন তিনি। এ ছাড়া গত ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম ২১, সাব্বির রহমান ৩৩, তামিম ইকবাল ১৯ ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ১৩ রান সংগ্রহ করেন।

জিম্বাবুয়ের হয়ে পানিয়াঙ্গারা ৩টি, ক্রেমার ও মুজারাবানি ২টি করে এবং উইলিয়ামস ও জোঙ্গউই ১টি করে উইকেট নেন। favicon

Leave a Reply