‘গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না’

‘গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না’

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের শেরে বাংলানগর থানার আয়োজনে ‘গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা আজ সোমবার (২৯ জুলাই) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আনিসুর রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কোষাধ্যক্ষ মো. হামিদুল হক খান। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শেরে বাংলানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানে আলম মুন্সী, এডিসি (প্রশাসন) মৃত্যুঞ্জয় দে, এসি (তেজগাঁও জোন) মাহমুদ হাসান, এডিসি (তেজগাঁও জোন) রোবায়েত হাসান প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আনিসুর রহমান বলেন, একটি প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী গুজব ছড়িয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চাইছে। তারা পদ্মাসেতু নিয়ে নানা ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। এসব অপপ্রচার বিশ্বাস করছে অনেক কুসংস্কারাচ্ছন্ন মানুষ এবং আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে। সমাজের শিক্ষিত সম্প্রদায়ের উচিত এসব মানুষকে সচেতন করা এবং গুজব প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করা। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদের গুজব প্রতিরোধ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ছাত্র-শিক্ষক, পুলিশ ও প্রশাসন সবাই গুজবের বিরুদ্ধে এক কাতারে দাঁড়ানোর ফলে বর্তমানে গণপিটুনির মতো বিষয়কে থামানো গেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার কথা উল্লেখ করে আনিসুর রহমান আরো বলেন, বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া গুজব ছড়ানোর একটি অন্যতম সহজ মাধ্যমে পরিণত হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব দ্রুত অপপ্রচার ছড়ানো যায়। প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী এই মাধ্যমটিই ব্যবহার করছে। তাই সমাজের সচেতন ও শিক্ষিত মানুষের উচিত সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজবের বিরুদ্ধে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মো. হামিদুল হক খান বলেন, দেশ আমাদের সকলের, তাই দেশকে ভালো রাখার দায়িত্বও সকলের। শুধু পুলিশ ও প্রশাসনের ওপর সমস্ত দায়িত্ব চাপিয়ে দিয়ে দেশকে নিরাপদ রাখা যাবে না। বর্তমান সময়ে গুজব ছড়িয়ে বিভিন্ন জায়গায় আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার যেসব ঘটনা ঘটছে সেসব মোকাবেলা করার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শিক্ষার্থীদেরকে জাতির বাতিঘর উল্লেখ করে মো. হামিদুল হক খান বলেন, তোমরাই জাতির বাতিঘর। তোমরাই সমাজে আলো ছড়াবে। সব রকমের গুজব, অপপ্রচার, ও কুসংস্কার মোকাবেলায় ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভূমিকা পালন করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Leave a Reply