সরকারি প্রকল্পে ৫১৯ চাকরি

সরকারি প্রকল্পে ৫১৯ চাকরি

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

বাংলাদেশ সরকারের অংশীদারত্বমূলক পল্লী উন্নয়ন প্রকল্পে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। সহকারী প্রোগ্রামার, ইন্সট্রাক্টর, ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অফিসার, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর ও ড্রাইভার পদে নেওয়া হবে ৫১৯ জন। প্রকল্প মেয়াদকালের জন্য (জুন ২০২০ পর্যন্ত) অস্থায়ী ভিত্তিতে এসব নিয়োগ দেওয়া হবে। আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ নভেম্বর।


সরকারের অংশীদারত্বমূলক পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প ৩-এ (পিআরডিপি-৩) অস্থায়ী ভিত্তিতে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হবে ৫১৯ জন। প্রকল্প পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা যায়, সারা দেশের ইউনিয়ন পর্যায়ে বিভিন্ন ধরনের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অফিসার পদে নিয়োগ দেওয়া হবে ৫১৫ জন। আবেদনের যোগ্যতা স্নাতকোত্তর অথবা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান)। তবে পল্লী উন্নয়নসংক্রান্ত কোনো প্রকল্পে কমপক্ষে দুই বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকলে তিন বছরমেয়াদি স্নাতক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। তাদের জন্য বয়সসীমাও শিথিলযোগ্য।

সহকারী প্রোগ্রামার নেওয়া হবে একজন। আবেদনের যোগ্যতা কম্পিউটার সায়েন্স বা ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক অথবা গণিত, পদার্থ বা পরিসংখ্যানে এমএসসি ডিগ্রি। প্রোগ্রাম ডিজাইন, ওয়েব পেইজ ডিজাইন, ডাটা এন্ট্রি ডিজাইনসহ কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ের নানা বিষয়ে অভিজ্ঞ হতে হবে। ইন্সট্রাক্টর পদে নেওয়া হবে একজন। আবেদনের যোগ্যতা স্নাতকোত্তর অথবা চার বছরমেয়াদে স্নাতক (সম্মান)। পল্লী উন্নয়নসংক্রান্ত প্রকল্পে কমপক্ষে দুই বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকলে তিন বছরমেয়াদে স্নাতক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। তাদের জন্য বয়সসীমাও শিথিলযোগ্য।

ডাটা এন্ট্রি অপারেটর পদে নেওয়া হবে একজন। এইচএসসি পাস হলেই আবেদন করা যাবে। থাকতে হবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও ডাটা এন্ট্রি কাজে দক্ষতা ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণ। একজন ড্রাইভার নেওয়া হবে। অষ্টম শ্রেণি পাস হলেই আবেদন করা যাবে। তবে থাকতে হবে বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স ও দুই বছর গাড়ি চালনার অভিজ্ঞতা। ৩০ নভেম্বর তারিখে সাধারণ প্রার্থীদের বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা বা পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদন যেভাবে

প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, আবেদন লিখতে হবে এ-ফোর সাইজের কাগজে। আবেদনপত্রে জীবনবৃত্তান্তের পূর্ণ বিবরণ উল্লেখ করতে হবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে সব শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতার সনদের সত্যায়িত অনুলিপি, সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের চার কপি রঙিন ছবি, পৌরসভার ওয়ার্ড কমিশনার, মেয়র বা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দেওয়া নাগরিকত্ব সনদ এবং প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তার দেওয়া চারিত্রিক সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি সংযুক্ত করতে হবে। প্রকল্প পরিচালক, ‘পার্টিসিপেটরি রুরাল ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট-৩’-এর অনুকূলে অগ্রণী ব্যাংক, ওয়াসা শাখা, কারওয়ান বাজার, ঢাকা এর ওপর যেকোনো তফসিল ব্যাংক শাখা থেকে ইস্যু করা সহকারী প্রোগ্রামার, ইন্সট্রাক্টর এবং ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অফিসার পদের জন্য ৩০০ টাকা এবং ডাটা এন্ট্রি অপারেটর ও ড্রাইভার পদের জন্য ২০০ টাকার অফেরতযোগ্য ব্যাংক ড্রাফট বা পে-অর্ডার জমা দিতে হবে। এ ছাড়া আবেদনপত্রের সঙ্গে প্রার্থীর বর্তমান ঠিকানা লেখা ৯ বাই ৪ মাপের একটি খাম ১০ টাকা মূল্যের ডাকটিকিট যুক্ত করে দিতে হবে।

মুক্তিযোদ্ধা কোটা, উপজাতি কোটাসহ অন্যান্য কোটার ক্ষেত্রে লাগবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। চাকরিরত প্রার্থীদের কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। খামের ওপরে পদের নাম, নিজ জেলা ও কোটা (যদি থাকে) উল্লেখ করতে হবে। আবেদনপত্র পৌঁছাতে হবে প্রকল্প পরিচালক, পিআরডিপি-৩, পল্লী ভবন, (ষষ্ঠ তলা), ৫ কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫ ঠিকানায়।

বাছাই প্রক্রিয়া

অংশীদারত্বমূলক পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প-৩-এর প্রকল্প পরিচালকের দপ্তর থেকে জানা যায়, নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে পাওয়া আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে। যোগ্য প্রার্থীদের বর্তমান ঠিকানায় পাঠানো হবে পরীক্ষার প্রবেশপত্র। কী ধরনের নিয়োগ পরীক্ষা হবে তা প্রার্থীদের জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রার্থীরা পরীক্ষার স্থান, তারিখ ও সময় প্রকল্পের ওয়েবসাইটের (www.prdp.brdb.gov.bd) মাধ্যমে জানতে পারবেন।

বেতনভাতা

প্রকল্পটি জুন ২০২০ পর্যন্ত চলবে। প্রকল্প চলাকালীন সহকারী প্রোগ্রামাররা সর্বসাকল্যে মাসিক বেতন পাবেন ৩২৩০০ টাকা। ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট অফিসার ও ইন্সট্রাক্টর পদের বেতন হবে ২৪৭০০ টাকা। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর ও ড্রাইভার পদে বেতন দেওয়া হবে ১৫৬৫০ টাকা।favicon59-4

Leave a Reply