পড়তে পারেন অপরাধবিজ্ঞানে

পড়তে পারেন অপরাধবিজ্ঞানে

  • ক্যারিয়ার ডেস্ক

অপরাধ নিয়ে পড়াশোনা! শুনতে অবাক লাগতে পারে। এখানে পড়া হয় মূলত অপরাধ দমনের নানা কলাকৌশল ও তত্ত্ব নিয়ে। বিভাগটির নাম ক্রিমিনোলজি বা অপরাধবিজ্ঞান বিভাগ। ২০১৩ সালে এ বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ক্রিমিনোলজি বিভাগে বর্তমানে ব্যাচেলর অব অনার্স, মাস্টার্স, সঙ্গে রয়েছে এমফিল ও পিএইচডি করার সুযোগ।

নতুন বিভাগ বলে অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে, এ বিভাগ থেকে পাস করার পর কাজের ক্ষেত্র কোথায়? তাঁদের জন্য বলি, বিসিএসে রয়েছে স্বতন্ত্র পুলিশ ক্যাডার। এ ছাড়া বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা যেমন এনএসআই, পুলিশের এসআর, জেলখানার জেলার ইত্যাদি জায়গায় নাম লেখাতে পারেন যোগ্যতার প্রমাণ রেখে। সরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি এনজিওতে এই বিষয়ে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ রয়েছে।

বিভাগের চেয়ারম্যান জিয়া রহমানের মতে, সমাজে আদিকাল থেকেই অপরাধ ছিল, এখনো আছে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অপরাধের ধরন পাল্টেছে। তাই অপরাধ মোকাবিলায় আধুনিক কলাকৌশল প্রয়োজন। তাই এ বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞানের জন্য এই বিভাগের জন্ম।

এই বিভাগের স্নাতক প্রোগ্রাম চার বছরের। মোট আটটি সেমিস্টারে বিভক্ত। প্রতিটি বিষয়ে চার ক্রেডিট করে ধরা হয়। মাস্টার্স করতে অবশ্যই যেকোনো বিষয়ে অনার্স (স্নাতক) শেষ করতে হবে। মাস্টার্স প্রোগ্রাম এক বছরের। বিস্তারিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ: ডিপার্টমেন্ট অব ক্রিমিনোলজি রুম নম্বর ১০৫৩, কলা ভবন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা-১০০০। ফোন: ৯৬৬১৯০০-৭৩ ই-মেইল: criminology@du.ac.bd

বাংলাদেশে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে ‘অপরাধ বিজ্ঞান’ বিষয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ তৈরি হয় টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে বিভাগটির নাম ‘ক্রিমিনোলজি ও পুলিশ সায়েন্স’ বিভাগ। এটি ২০০৪ সাল থেকে স্নাতক এবং ২০১০ সাল থেকে স্নাতকোত্তর শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বিস্তারিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ: http://mbstu.ac.bd ফোন:+880921 51899, ই-মেইল: registrar@mbstu.ac.bdfavicon59-4

Leave a Reply