সার্বিয়া সীমান্ত খুলে দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া

সার্বিয়া সীমান্ত খুলে দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া

নিউজ ডেস্ক: সার্বিয়া সংলগ্ন সীমান্ত খুলে দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। গতকাল সোমবার পর্যন্ত সেখানে অন্তত ১০ হাজারেরর বেশি শরণার্থী আটকা পড়েন। সার্বিয়া অংশে প্রচণ্ড ঠান্ডা ও বৃষ্টির মধ্যে দুঃসহ রাত পার করেন হাজারো নারী, পুরুষ এবং শিশু শরণার্থী। সংবাদ:বিবিসি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, পরিস্থিতি ভয়াবহ বলে মন্তব্য করেছে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর। ইউএনএইচসিআরের মুখপাত্র মেলিতা সানজিক গতকাল রাতে জানান, কোনো ঘোষণা না দিয়েই সীমান্ত খুলে দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। যে কারণে শরণার্থীদের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায় সে সময়।

গতকাল সিরিয়া, আফ্রিকা ও আফগানিস্তানের হাজারো শরণার্থী ক্রোয়েশিয়া-স্লোভেনিয়া সীমান্তের কাছে আটকা পড়েন। তাঁদের গন্তব্য সুইডেন, জার্মানি, ও ইউরোপের অন্যান্য দেশ।

ক্রোয়েশিয়া ও সার্বিয়ার ত্রনোভেক সীমান্তে শরণার্থীদের প্রচন্ড দুর্দশা পোহাতে হয়। প্রচণ্ড শীত আর বৃষ্টির মধ্যে নো ম্যানস ল্যান্ডে শিশু, নারীসহ শত শত শরণার্থী অপেক্ষা করেন আর সীমান্ত খুলে দেওয়ার জন্য চিৎকার করতে থাকেন।

বাসে করে ক্রোয়েশিয়া থেকে হাজার হাজার শরণার্থীকে সীমান্ত থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তবে এখনও বেরকসোভোর সীমান্তের আশ্রয়কেন্দ্রে শরণার্থীরা গাদাগাদি করে আছেন। স্লোভেনিয়া সীমান্ত থেকে শরণার্থীদের নিয়ে যেতে ক্রোয়েশিয়া কমপক্ষে দুটি ট্রেন ও বেশ কয়েকটি বাস পাঠিয়েছে।

তুরস্ক থেকে প্রতিদিন অন্তত পাঁচ হাজার শরণার্থী সমুদ্রপথে নৌকায় গ্রিসে হয়ে পাড়ি জমাচ্ছেন এই সার্বিয়া-ক্রোয়েশিয়া সীমান্তে। favicon

Leave a Reply