ঢাবিতে বৈশাখী খাবার

ঢাবিতে বৈশাখী খাবার

  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

রাত পোহালেই বাংলা নববর্ষ। চারিদিকে চলছে বর্ষবরণের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। প্রতি বছরের মতো এবছরও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস জুড়ে অনেক সংগঠন এবং বিশ্ববিদ্যালয় অনুষদগুলো আয়োজন করবে বাংলা বর্ষবরণের অনুষ্ঠান।

পিছিয়ে নেই বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনও। ২০১৬ সালকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগেই ঘোষণা করেছিলেন ‘পর্যটন বর্ষ’ হিসেবে। তাই দেশীয় পর্যটনকে সবার সামনে তুলে ধরার লক্ষ্যে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ‘ভিজিট বাংলাদেশ ২০১৬’ প্রচারণা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এই প্রচারণার অংশ হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যটন কর্পোরেশন আগামীকাল বৈশাখী খাবারের আয়োজন করবে। ‘চাকায় চড়ে ঢাকায়- বৈশাখী খাবার’ শিরোনামে এই আয়োজনটি অনুষ্ঠিত হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হাকিম চত্বরে। সকাল ১০টায় শুরু হয়ে বৈশাখী খাবারের এই উৎসব চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

‘মাছে-ভাতে বাঙ্গালী’দের ভোজনরসিক হিসেবে এমনিতেই রয়েছে আলাদা সুনাম। খাদ্য-রসিকদের কথা ভেবেই আয়োজন করা হয়েছে এই ভিন্নধর্মী ফুড ক্যারাভ্যান। বিক্রয় ও প্রদশর্নীর উদ্দেশ্যে থাকছে ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেইনিং ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থীদের তৈরি করা বিভিন্ন পদের ঐতিহ্যবাহী দেশী খাবার ! পান্তা-ইলিশ কিংবা নানা পদের ভর্তা আর ছোট মাছের চচ্চরি তো থাকছেই। এর বাইরে থাকছে রুই মাছ ভাজা, আলু ভর্তা, লইট্যা শুঁটকি ভুনা, খিচুড়ি, বিফ ভুনা, চিকেন ভুনা, চিকেন মাসালা, মাটন কারি, ফুচকাসহ আরো হরেক পদের আয়োজন।

এই ব্যাতিক্রমধর্মী আয়োজনের ডিজিটাল মার্কেটিং পার্টনার হিসেবে থাকছে বিএনবি (BUZZ N’ BOOST)। বাজ এন বুস্ট এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাফাত কাদির বাংলাদেশ পর্যটন কর্পরেশনের আয়োজনটিকে খুবই ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন এবং পাশাপাশি সবাইকে অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ।

উল্লেখ্য, আয়োজনের অংশ হিসেবে সেলফি কর্নার এবং বিভিন্ন নকশার ফ্রেম থাকবে অনুষ্ঠান প্রাঙ্গনে। এছাড়া ফ্রি ওয়াইফাইয়ের ব্যবস্থা থাকবে অনুষ্ঠানসংলগ্ন এলাকায়।favicon59

Leave a Reply