এসিএম আইসিপিসির চূড়ান্ত পর্বে বাংলাদেশের ২০ বছর

এসিএম আইসিপিসির চূড়ান্ত পর্বে বাংলাদেশের ২০ বছর

  • বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ডাকোটার র‍্যাপিড সিটিতে শুরু হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের কম্পিউটার প্রোগ্রামারদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আয়োজন এসিএম আন্তর্জাতিক কলেজিয়েট কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার (আইসিপিসি) চূড়ান্ত পর্ব। এটি আইসিপিসির ৪১তম আয়োজন। আর এ বছর বাংলাদেশের এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের ২০ বছর পূর্ণ হলো। ১৯৯৮ থেকে বাংলাদেশ এতে অংশ নিচ্ছে।

এই দুই দশকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ১৮ বার চূড়ান্ত পর্বে অংশ নিয়েছে। এ ছাড়া শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) পাঁচবার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিট তিনবার, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (এআইইউবি) এবং ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় একবার করে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এসিএম আইসিপিসিতে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সাফল্য ১১তম (২০০০ সাল) এবং ১৯তম (২০১৪) স্থান অর্জন। এ দুটি সাফল্যই এসেছে বুয়েটের হাত ধরে। প্রোগ্রামিং দলগুলোর পাশাপাশি বাংলাদেশিদের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য অর্জন রয়েছ এই গৌরবময় আসরে। সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহরিয়ার মঞ্জুর ২০০৩ সাল থেকে এই প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এবারের চূড়ান্ত পর্ব শুরু হয়েছে ২০ মে। তবে মূল প্রতিযোগিতা হবে আগামীকাল ২৪ মে। বাংলাদেশ থেকে বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এতে অংশগ্রহণ করছে। দলগুলো হলো বুয়েট রায়ো (তন্ময় মল্লিক, এম এম হারুন উর রশীদ ও নাজমুর রশীদ এবং কোচ: মোহাম্মদ কায়কোবাদ), ডিইউ সেন্সরড (রেজওয়ান মাহমুদ, শাহেদ শাহরিয়ার ও সাবিত আনোয়ার এবং কোচ: তমাল অধিকারী) ও জেইউ সার্কাভেক্স (বীর বাহাদুর ক্ষেত্রী, রায়হাত জামান ও মো. শাহেদুল ইসলাম এবং কোচ: মোহাম্মদ শরিফ উদ্দিন)।

সূত্র: প্রথম আলোfavicon59-4

Leave a Reply